শেরপুরে মা-ছেলেসহ ১২ জনের করোনা শনাক্ত

বিজ্ঞাপন

শেরপুরে মা-ছেলে ও ৮ পুলিশ সদস্যসহ আরও ১২ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৫৪ জন। এর মধ্যে ২৮ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন।

গতকাল রোববার রাতে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরীক্ষাগার থেকে পাঠানো প্রতিবেদনে ওই ১২ জনের করোনা পজিটিভের কথা নিশ্চিত করা হয়।
জেলা ও উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, নতুন করে আক্রান্তদের মধ্যে সদর থানার একজন সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) ও তিনজন কনস্টেবল, নালিতাবাড়ী থানার দুজন এএসআই ও দুজন কনস্টেবল এবং নকলা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের একজন সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক আছেন। এ ছাড়া আক্রান্তদের মধ্যে শেরপুর জেলা শহরের মা ও ছেলে এবং সদর উপজেলার মুন্সিরচর এলাকার একজন পল্লি চিকিৎসক আছেন। এ নিয়ে জেলায় ১৭ জন পুলিশ সদস্য ও ছয়জন চিকিৎসকসহ ২০ জন স্বাস্থ্যকর্মী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলেন।

নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বশির আহম্মেদ বলেন, তাঁর থানার আক্রান্ত চার পুলিশ সদস্যের মধ্যে দুজন বাড়িতে আইসোলেশনে আছেন। আর দুজনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের করোনা আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

সদর থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, তাঁর থানার আক্রান্ত চার পুলিশ সদস্যই বাড়িতে আইসোলেশনে আছেন।

নকলা উপজেলার স্বাস্থ্যকর্মী ও সদর উপজেলার মা-ছেলেসহ তিনজন বাড়িতে আইসোলেশনে আছেন।

জেলা সিভিল সার্জন এ কে এম আনওয়ারুর রউফ প্রথম আলোকে বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে যে সামাজিক সংস্পর্শের কারণেই পুলিশ সদস্যসহ ওই ১২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। করোনা পরীক্ষার জন্য তাদের সংস্পর্শে আসা অন্যদের নমুনাও সংগ্রহ করা হবে। করোনার বিস্তার ঠেকাতে সাধারণ মানুষকে সচেতন হওয়ার ও সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার জন্য আহ্বান জানান তিনি।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন