ভাষাশহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধায় পালিত হলো অমর একুশে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। একুশের প্রথম প্রহরে শহীদ মিনারের বেদিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় স্থানীয় প্রশাসন ও বিভিন্ন সংগঠনের কর্মীরা। গতকাল শনিবার সকালে ঢল নামে সাধারণ মানুষের। শিশু, প্রৌঢ়—সব বয়সী মানুষ রাস্তায় নেমে আসেন ভাষাশহীদদের স্মরণে। তাঁরা একুশের চেতনায় দেশ গড়ার প্রত্যয় জানান।
ঢাকার বাইরে প্রথম আলোর প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর:
মানিকগঞ্জ: শহরের বিজয় মেলা মাঠে শহীদ মিনারের বেদিতে একুশের প্রথম প্রহরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, ভাষাশহীদ রফিকের পরিবার, মানিকগঞ্জ প্রেসক্লাব, সাংবাদিক সমিতি, জেলা ক্রীড়া সংস্থাসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন। সকালে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক। এরপর আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাসদ, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি), জাতীয় পার্টিসহ বিভিন্ন দল, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও সাধারণ মানুষ ভাষাশহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।
জেলার সিঙ্গাইর উপজেলায় ভাষাশহীদ রফিক উদ্দিন আহমদের গ্রামের বাড়ি রফিকনগরে অস্থায়ী শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান তাঁর স্বজন ও শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। ছিলেন সাধারণ মানুষও।
গত শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে শহরের ভাষাশহীদ রফিক মুক্তমঞ্চে গণসংগীতের আয়োজন করা হয়। গতকাল বিকেলে সেখানে সংবর্ধনা দেওয়া হয় ভাষাসংগ্রামীদের।
মুন্সিগঞ্জ: রাত ১২টা ১ মিনিটে মুন্সিগঞ্জের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিল, প্রথম আলো বন্ধুসভাসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন। গতকাল বিকেলে জেলা প্রশাসন সেখানে আয়োজন করে আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের।
কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারসংলগ্ন শিল্পকলা একাডেমী প্রাঙ্গণে সপ্তাহব্যাপী বইমেলার গতকাল ছিল সমাপনী দিন। অগুনতি মানুষের আগমনে দিনব্যাপী সরব থাকে মেলা প্রাঙ্গণ।
নারায়ণগঞ্জ: শহরের চাষাঢ়ায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে একুশের প্রথম প্রহরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় জেলা ও পুলিশ প্রশাসন ছাড়াও বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন। সকালে শ্রদ্ধা জানায় নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোট, গণসংহতিসহ অন্যান্য সংগঠন। সাধারণ মানুষের ভিড় তো ছিলই।
গাজীপুর: জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন একুশের প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা জানায়।
অমর একুশে উপলক্ষে জেলা প্রশাসন শুক্রবার থেকে ভাওয়াল রাজবাড়ি মাঠে দুই দিনব্যাপী বইমেলা, শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও আলোচনা সভার আয়োজন করে। জেলা প্রশাসক মো. নূরুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. মোহসীন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এস এম মোস্তফা কামাল এসব কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন।
ভাওয়াল মির্জাপুর বিশ্ববিদ্যালয় কলেজেও একই ধরনের কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। কলেজের অধ্যক্ষ মাহমুদুল হকের সভপতিত্বে ভাষা দিবসের ওপর আলোচনা করেন অধ্যাপক নওজেশ আলী, স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা মো. শফিকুল ইসলাম।
গতকাল দুপুরে ভাষাশহীদ বরকতের পরিবারের পক্ষ থেকে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নলজানি এলাকায় বরকতের মায়ের কবরের পাশে কোরআনখানি ও মিলাদের আয়োজন করা হয়। দুস্থদের দেওয়া হয় খাবার।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন