বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়-সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটি সূত্র জানায়, গত ৭ নভেম্বর অনুষ্ঠিত কমিটির বৈঠকে বিদেশ সফরের প্রসঙ্গটি তুলেছিলেন কমিটির সংরক্ষিত মহিলা আসনের সদস্য শবনম জাহান। তিনি ওই বৈঠকে বলেছিলেন, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়-সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্যরা বিদেশ সফরে যাচ্ছেন। সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়-সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির পক্ষ থেকে বিদেশ সফরের কোনো সুযোগ আছে কি না, তাঁর এই বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে কমিটির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেছিলেন, তিনি মন্ত্রী (সমাজকল্যাণমন্ত্রী) থাকার সময় থেকে সংসদীয় কমিটির বিদেশ সফরের বিষয়ে আলোচনা হচ্ছে। স্থায়ী কমিটিতে সিদ্ধান্ত হয়েছিল যে বিদেশে যাওয়া হবে। পরবর্তী সময়ে বিদেশ সফরের বাজেট নিয়ে মন্ত্রণালয় বলেছে, সংসদ সচিবালয় বহন করবে। আর সংসদ সচিবালয় বলছে, এ-সংক্রান্ত সফরের বাজেট সংসদ সচিবালয় থেকে দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। সর্বশেষ মন্ত্রণালয় থেকে সিদ্ধান্ত হয়েছিল, বিদেশ সফরের ব্যবস্থা করা হবে। কিন্তু এর মধ্যে করোনা সংক্রমণ শুরু হওয়ায় আর বিদেশ সফর হয়নি।

ওই বৈঠকে সমাজকল্যাণসচিব মাহফুজা আখতার বলেছিলেন, সফরের বিষয়টি তাঁর জানা নেই। বিস্তারিত জেনে তিনি অবহিত করবেন। তখন সংসদীয় কমিটি তাদের বিদেশ সফরের বিষয়ে পরবর্তী বৈঠকে মন্ত্রণালয়কে জানাতে বলেছিল।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ৭ নভেম্বরের ওই বৈঠকের পর গতকাল রোববার সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়-সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির ১৪তম বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। তাতে মন্ত্রণালয় জানায়, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়-সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বিদেশ সফরের বিষয়ে চার কোটি টাকা বরাদ্দ চেয়ে অর্থ বিভাগে প্রস্তাব প্রেরণ করা হয়েছে।

বৈঠক সূত্র জানায়, গতকালের বৈঠকে এই বিষয়ে আবার আলোচনা হয়। অর্থ বরাদ্দের বিষয়টি চূড়ান্ত হলে কোন দেশে সফরের আয়োজন করা হবে, তা ঠিক করা হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, এর আগে গত বছরও প্রতিবেশী দেশের সমাজকল্যাণমূলক কার্যক্রম দেখার জন্য বিদেশ সফরের আয়োজন করার সুপারিশ করেছিল এই সংসদীয় কমিটি। তখন মন্ত্রণালয় বাজেট-স্বল্পতার কথা বলেছিল।

এর আগে বিভিন্ন সময়ে মন্ত্রণালয়ের টাকায় এমন সফর নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল। ২০১৮ সালে সংসদীয় কমিটির সদস্যদের বিদেশ সফর আয়োজনের সুপারিশ করেছিল প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয়-সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। তখন বিষয়টি নিয়ে একটি সারসংক্ষেপ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পাঠিয়েছিল তারা। তখন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নির্দেশনায় বলা হয়, সাংসদদের বিদেশ সফরের ক্ষেত্রে সংসদ সচিবালয় থেকে ব্যয়ভার বহন করা যেতে পারে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন