default-image

দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে সংসদে যোগ দেওয়া গণফোরামের সদস্য মোকাব্বির খান নতুন করে সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবি জানিয়েছেন। আজ বুধবার সংসদে যোগ দেওয়ার প্রথম দিনেই তিনি এই দাবি জানান।

গণফোরাম ও এই সংগঠনের সভাপতি ড. কামাল হোসেনের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে মোকাব্বির খান বলেন, ‘আমি গণফোরামের পক্ষে দ্ব্যর্থহীন ভাষায় বলেতে চাই, ৩০ ডিসেম্বরের সাধারণ নির্বাচন নিয়ে জনমনে প্রশ্ন আছে। প্রধানমন্ত্রীর কাছে সর্বপ্রথম দাবি জানাব, অবিলম্বে এমন একটি সাধারণ নির্বাচনের ব্যবস্থা করুন, যাতে দলমত-নির্বিশেষে দেশের মানুষ নির্ভয়ে তাঁদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেন।’

মোকাব্বির বলেন, ‘গণফোরাম চার লাখ কোটি টাকা পাচার, ব্যাংকের টাকা তছরুপ হওয়া, নুসরাতকে পুড়িয়ে মারার মতো অপরাজনীতির বিপরীতে ঐক্যবোধ পুনরুদ্ধারের স্বপ্ন দেখে। আজ সময় এসেছে আত্মজিজ্ঞাসার। ৩০ ডিসেম্বরের মতো নির্বাচন কেন করা সম্ভব হলো, এর দায় কার কতটা, আমরা যে যার দায়িত্ব পালন করতে সক্ষম হয়েছি কি না, রাষ্ট্রযন্ত্র কেন এতটা রুগ্‌ণ হতে পারল—এসব খতিয়ে দেখা দরকার।’

সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে মোকাব্বির খান বলেন, ‘তাঁর চিকিৎসা না হওয়ায় দেশের সচেতন মানুষকে পীড়িত করছে। অবিলম্বে তাঁর চিকিৎসার ব্যবস্থা নেওয়া হলে আমি বিশ্বাস করি বঙ্গবন্ধুকন্যার মহানুভবতার প্রমাণ মেলবে। আমরা জানি বিরোধী রাজনীতিকদের বঙ্গবন্ধু গোপনে সাহায্য ও সহযোগিতা করতেন।’ 

সবশেষে মোকাব্বির তাঁর এলাকার নিখোঁজ বিএনপির নেতা ইলিয়াছ আলীর অনুসন্ধানে তদন্ত কমিটি গঠনের দাবি জানান।

মোকাব্বিরের এই বক্তব্যের সময় সরকারি দলের সদস্যরা মৃদুস্বরে হইচই করেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন