বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলায় যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে সিএনজিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে দুজন নিহত হয়েছেন। জয়পুরহাটে ট্রাক ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে একজন এবং সিরাজগঞ্জের কাজীপুরে দুটি মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে আরেকজন নিহত হয়েছেন। গতকাল শুক্রবার এসব ঘটনা ঘটেছে।
প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর:
বগুড়া: সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বগুড়া-নাটোর মহাসড়কের নন্দীগ্রামের কৈগাড়ী ও দামগাড়ার মাঝামাঝি এলাকায় বগুড়া থেকে ছেড়ে আসা যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই অটোরিকশার দুই যাত্রী নিহত ও তিনজন আহত হন। নিহত দুজন হলেন রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার ঘুটিপাড়া গ্রামের নুর ইসলাম (৪৫) ও বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার গয়নাকুড়ি গ্রামের মিঠু মিয়া (৪৫)। আহত ব্যক্তিদের মধ্যে নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার বাঁশভাঙ্গা গ্রামের বাসিন্দা অটোরিকশাচালক শামছুল হক, যাত্রী পুঠিয়া উপজেলার জামিরা গ্রামের মাহবুব আলম (৪৪) ও শিবপুর গ্রামের শরিফুল ইসলামকে গুরুতর অবস্থায় বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ দুটি শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।
জয়পুরহাট: বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জয়পুরহাট সদর উপজেলার ইছুয়া গ্রামের আবদুস সাত্তার একই গ্রামের মলিন হোসেনকে (২২) নিয়ে জয়পুরহাট থেকে মোটরসাইকেলে করে বাড়ি ফিরছিলেন। পথে শহরের গার্লস ক্যাডেট কলেজ মোড়ে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাক তাঁদের চাপা দেয়। এতে মলিন হোসেন ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান। আহত আবদুস সাত্তারকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
সিরাজগঞ্জ: বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে কাজীপুর উপজেলার যমুনা নদীর চরাঞ্চলের নাটুয়ার পাড়া হাট থেকে দুইজন যাত্রী নিয়ে চালক মোতালেব (২৪) নিজ গ্রাম তেকানী ইউনিয়নের পারখুকশিয়া যাচ্ছিলেন। পানাগাড়ি এলাকায় পেছন থেকে আরেকটি চলন্ত মোটরসাইকেল মোতালেবের মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয়। এতে মোতালেব নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে একটি গাছের সঙ্গে ধাক্কা খান। এ ঘটনায় তিনজনই গুরুতর আহত হন। সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে মোতালেব মারা যান।
এদিকে নাটোর প্রতিনিধি জানান, বড়াইগ্রাম উপজেলায় বেলা ১১টার দিকে বনপাড়া-হাটিকুমরুল সড়কের রাজ্জাক মোড় এলাকায় দুটি বাসের সংঘর্ষে উভয় গাড়ির ২০ যাত্রী আহত হয়েছেন।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন