বরিশালের গৌরনদীতে গতকাল শুক্রবার একটি যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়। এতে ১০ যাত্রী ও দুই পথচারী নিহত হন। একই দিন সড়ক দুর্ঘটনায় গোপালগঞ্জে এক স্কুলছাত্রী ও ঝিনাইদহে এক নারী প্রাণ হারিয়েছেন। এ ছাড়া গত বৃহস্পতিবার গোপালগঞ্জে এক তরুণের মৃত্যু হয়।
প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিবেদক, আঞ্চলিক কার্যালয় ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর:
গৌরনদী (বরিশাল): গৌরনদী হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহবুবুর রহমান চৌধুরী জানান, গতকাল সকাল সাড়ে ১০টায় বরিশাল থেকে সোনার তরী পরিবহনের একটি বাস ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসে। সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কে গৌরনদীর বাটাজোর অশ্বিনী কুমার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দক্ষিণ পাশে সেতুর কাছে বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়। এ সময় বাসের চাপায় পথচারী উজিরপুর উপজেলার আটক গ্রামের কুব্বত আলী (৬০) ও ভ্যানচালক সেকান্দার আলী হাওলাদার (৪৫) মারা যান। এ ছাড়া বাসের ১০ যাত্রী আহত হন। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে।
ফরিদপুর: গতকাল সকাল নয়টার দিকে গোপালগঞ্জ-কোটালীপাড়া আঞ্চলিক সড়কে গোপালগঞ্জ সদরের দত্তপাড়া বাসস্ট্যান্ডের কাছে মাইক্রোবাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে লাবিবা খাতুন (৬) নামের এক স্কুলছাত্রী প্রাণ হারায়। লাবিবা গোপালগঞ্জ সদরের বাজুনিয়া গ্রামের মো. আবদুল্লাহ মোল্লার মেয়ে এবং স্থানীয় দত্তপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির ছাত্রী ছিল। গোপালগঞ্জ সদর থানার ওসি মো. জাকির হোসেন বলেন, মাইক্রোবাসটিকে কোটালীপাড়া থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় জব্দ করা হয়। চালক পালিয়ে গেছেন।
এর আগে বৃহস্পতিবার বিকেলে গোপালগঞ্জ সদরের দুর্গাপুর গ্রামে মোটরসাইকেলের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে জুয়েল শেখ (২৩) নামের এক তরুণ নিহত হন। জুয়েল কাশিয়ানী উপজেলার রামদিয়া গ্রামের সালাম শেখের ছেলে। তাঁর ভাই সোহেল শেখ জানান, মোটরসাইকেল নিয়ে বড় বোন কোহিনূরকে বাড়ি আনার পথে একটি রিকশাভ্যানকে জায়গা দিতে গিয়ে জুয়েল দুর্ঘটনায় পড়েন। ওসি মো. জাকির হোসেন বলেন, পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে লাশ ময়নাতদন্ত ছাড়াই হস্তান্তর করা হয়েছে।
ঝিনাইদহ: ঝিনাইদহ-চুয়াডাঙ্গা সড়কের বৈডাঙ্গা বাজারে গতকাল বেলা ১১টার দিকে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় ফাতেমা খাতুন (৬০) নামের এক নারী আহত হন। গুরুতর অবস্থায় তাঁকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে বিকেলে তিনি মারা যান। ফাতেমা খাতুন সদর উপজেলার নারায়ণপুর গ্রামের মৃত আলী আহমেদের স্ত্রী। সদর থানার ওসি শাহাবুদ্দীন আজাদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন