গোপালগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় চায়না বেগম (৪০) নামের এক গৃহবধূ নিহত হয়েছেন। গতকাল রোববার সন্ধ্যায় ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী উপজেলার তিলছাড়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।
একই দিন চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার চিতলা মোড়ে দ্রুতগামী মাইক্রোবাসের ধাক্কায় জুবায়ের হোসেন (৫) নামে এক শিশু ঘটনাস্থলেই মারা গেছে। নিহত জুবায়ের চিতলা গ্রামের নতুনপাড়ার হাফিজুর রহমানের ছেলে।
নিহত চায়না বেগম কাশিয়ানী উপজেলার ওড়াকান্দী ইউনিয়নের কামারুল গ্রামের রহমত শেখের স্ত্রী।
প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন জানান, ঢাকা থেকে খুলনাগামী আরা পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস পথচারী চায়না বেগমকে চাপা দিলে তিনি ঘটনাস্থলেই মারা যান। এ দুর্ঘটনার পর ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী প্রায় ৩০ মিনিট মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে।
কাশিয়ানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম জানান, ঘটনার বিচারের আশ্বাসে এলাকাবাসী অবরোধ তুলে নেয়। বাসটি আটক করা হয়েছে। তবে চালক পলাতক রয়েছেন।
প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, জুবায়ের মাঠ থেকে বাড়ি যাওয়ার জন্য রাস্তা পার হতে গেলে কার্পাসডাঙ্গা থেকে দামুড়হুদাগামী দ্রুতগামী মাইক্রোবাস তাঁকে ধাক্কা দেয়। ঘটনাস্থলেই জুবায়েরের মৃত্যু হয়। চালক পালিয়ে গেছে। পুলিশ দুর্ঘটনাকবলিত মাইক্রোবাসটি উদ্ধার করে থানায় নিয়েছে ।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন