ঝিনাইদহে সড়ক দুর্ঘটনায় আমিনুর রহমান (২৫) নামের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্র নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন চারজন। গতকাল শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ-কোটচাঁদপুর সড়কের কালীগঞ্জ শহর-সংলগ্ন শিবনগর গুলশান মোড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
আমিনুর ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের শান্তি ও সংঘর্ষ বিভাগ থেকে সম্প্রতি স্নাতকোত্তর শেষ করে এমফিল করার অপেক্ষায় ছিলেন। থাকতেন সূর্য সেন হলে। তিনি যশোর সদর উপজেলার চূড়ামনকাটি এলাকার বাগডাঙ্গা গ্রামের মৃত জয়নাল আবেদীনের ছেলে। আমিনুর স্নাতক ও স্নাতকোত্তর—দুটোতেই প্রথম শ্রেণি পেয়ে উত্তীর্ণ হন। আহত ব্যক্তিরা হলেন রিতু পারভিন, মিনি খাতুন, আবদুস সাত্তার ও ইকবাল হোসেন। তাঁদের যশোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
নিহত আমিনুরের আত্মীয় ফিরোজ মাহমুদ জানান, বাগডাঙ্গা গ্রাম থেকে কালীগঞ্জের বালিয়াডাঙ্গা গ্রামে যাচ্ছিলেন আমিনুর রহমান। সঙ্গে বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের আরও কয়েকজন আত্মীয় তাঁর সঙ্গে ছিলেন। তাঁরা কালীগঞ্জ শহরের প্রধান বাসস্ট্যান্ড থেকে একটি যাত্রীবাহী মাহেন্দ্রতে ওঠেন। গাড়িটি ছাড়ার কিছুক্ষণের মধ্যে শিবনগর গুলশান মোড় এলাকায় একটি নছিমনকে (শ্যালো ইঞ্জিনচালিত তিন চাকার যান) পাশ দিতে গিয়ে মাহেন্দ্রটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পাশে দাঁড়িয়ে থাকা একটি ট্রাককে ধাক্কা দেয়। এতে আমিনুরসহ পাঁচজন আহত হন। স্থানীয় লোকজন তাঁদের উদ্ধার করে কালীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে আমিনুর মারা যান।
আমিনুরের ভাই শরিফ হোসেন জানান, আমিনুর খুবই মেধাবী ছাত্র ছিলেন। পাঁচ ভাই আর তিন বোনের মধ্যে আমিনুর সবার ছোট। আমিনুর এসএসসি ও এইচএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0