default-image

এ বছরের সনি স্টুডেন্ট গ্রান্ট অর্জন করেছেন বাংলাদেশের তরুণ আলোকচিত্রী রিয়াদ আবেদীন। প্রতিষ্ঠানটির ওয়েবসাইটে বিষয়টি প্রকাশ করা হয়েছে।

প্রতিবছর সনি ওয়ার্ল্ড ফটোগ্রাফি অর্গানাইজেশন স্টুডেন্ট ফটোগ্রাফি প্রতিযোগিতার আয়োজন করে থাকে। ফটোগ্রাফি পড়ানো হয়, এমন যেকোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী নিবন্ধনের মাধ্যমে প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারেন। অংশগ্রহণের জন্য পূর্বনির্ধারিত কোনো বিষয়ের ওপর একটি ফটো–স্টোরি (ছবির গল্প) জমা দিতে হয়।

সনির আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন বিচারকেরা অনেক যাচাই–বাছাইয়ের পর প্রতিযোগীদের মধ্য থেকে দুইজনকে চূড়ান্তভাবে নির্বাচন করেন। ২০২০ সালে দক্ষিণ এশিয়া থেকে একমাত্র বাংলাদেশি হিসেবে রিয়াদ নির্বাচিত হয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

রিয়াদের ফটো–স্টোরির শিরোনাম ‘ইন সার্চ অব লস্ট টিউন’। বিভিন্ন কারণে বাংলাদেশের মানুষকে নিজের শিকড় ছেড়ে দেশের অন্যান্য স্থানে পাড়ি জমাতে হয়।

কিন্তু শিকড়ের কাছে ফেরার আকুতি মনে রয়েই যায়—এই আকুতিকেই এই ফটো–স্টোরিতে ক্যামেরাবন্দী করছেন রিয়াদ আবেদীন। রিয়াদ প্রথম আলোকে বললেন, ‘আমার জন্মস্থান নোয়াখালী। নোয়াখালীতে প্রধানত দুই কারণে মানুষ ভিটেমাটি ছেড়েছেন—জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব এবং ’৪৭–এর দেশভাগ। কিন্তু এই মানুষগুলোর ফিরে যাওয়ার টান রয়েছে, আমি সেই আকুলতাকে ছবির মাধ্যমে প্রকাশ করার চেষ্টা করছি।’

এই প্রতিযোগিতায় প্রাথমিকভাবে ১০ জনকে নির্বাচন করা হয়। তারপর প্রত্যেককে একটি করে প্রকল্প প্রস্তাব জমা দিতে হয়। প্রস্তাব মূল্যায়ন করে চূড়ান্তভাবে দুইজনকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। এই দুজন বিজয়ীকে সনির অর্থায়নে এক বছর নিজ নিজ প্রস্তাব বাস্তবায়নে কাজ করতে হবে। ২০২১ সালের এপ্রিলে লন্ডনের সামার সেট হাউসে দুজনের কাজ প্রদর্শিত হবে। শিক্ষার্থীদের কর্মজীবন উন্নয়নেও সহায়তা প্রদান করা এই কর্মসূচির লক্ষ্য।
রিয়াদ প্রথম আলোকে আরও বলেন, ‘একজন তরুণ আলোকচিত্রী হিসেবে এই সুযোগ গ্রহণ করতে পেরে আমি আনন্দিত। কর্মজীবনের শুরুতেই নিজের কাজ বিশ্বকে দেখানোর সুযোগ পাওয়া আমার জন্য অনেক বড় বিষয়।’ রিয়াদের জন্ম ১৯৯৩ সালে। এর আগে তিনি ইয়ান পেরি স্কলারশিপে ফাইনালিস্ট হয়েছিলেন। তাঁর ছবি নিউইয়র্কে প্রদর্শিত হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0