যশোরের কেশবপুরের নবনির্বাচিত সাংসদ শাহীন চাকলাদার বলেছেন, সন্ত্রাসীদের কোনো জায়গা কেশবপুরে হবে না। উপজেলা চেয়ারম্যান, মেয়র, চেয়ারম্যানদের কোনো কর্মী যদি মাস্তানি করে, অন্যায় করে, তাকে ছেড়ে দেওয়া হবে না।

জাতির জনকের ৪৫তম শাহাদতবার্ষিকী উপলক্ষে কর্মসূচির বিষয়ে কেশবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে বৃহস্পতিবার স্থানীয় এক অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন সাংসদ।

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কেশবপুরের সাংসদ শাহীন চাকলাদার বলেন, কেশবপুরে আজ থেকে কোনো বাহিনী থাকবে না। পুরোনো দিনের কথা ভুলে গিয়ে আজ থেকে কোনো জমি দখল, চাঁদাবাজি, মাস্তানি করলে তাঁকে কঠোর সাজা পেতে হবে।

সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এস এম রুহুল আমিন। বক্তৃতা করেন যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহামুদুল ইসলাম, যশোর সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহারুল ইসলাম, কেশবপুর পৌরসভার মেয়র রফিকুল ইসলাম, কেশবপুর কমিটির সাধারণ সম্পাদক গাজী গোলাম মোস্তফা। উপস্থিত ছিলেন কেশবপুর কমিটির সহসভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান এইচ এম আমির হোসেন, সহসভাপতি তপন কুমার ঘোষ প্রমুখ।