default-image

বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০-দলীয় জোটের হরতাল-অবরোধের নামে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ শনিবার বিকেলে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতু এবং ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে ভুলতা ফ্লাইওভারের ভিত্তিপ্রস্তর অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।
শেখ হাসিনা বলেন, ‘২০১৩ সালের মতো বিএনপি-জামায়াত আবার একই কায়দায় মানুষ হত্যার খেলা শুরু করেছে। তারা মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করছে। এ ধরনের কর্মকাণ্ডে দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে। জনগণের কষ্ট হচ্ছে। ছেলেমেয়েদের লেখাপড়া নষ্ট হচ্ছে। এগুলো মেনে নেওয়া যায় না।’
সহিংস কর্মকাণ্ডে জড়িতদের কঠোরভাবে দমন করা হবে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, সরকার সব ধরনের ব্যবস্থা নেবে। কারও ব্যক্তিগত স্বার্থের জন্য দেশের মানুষকে পুড়িয়ে মারবে, এটা কোনোভাবেই কাম্য নয়। সহিংসতাকারীদের দমনে দেশবাসীর সহযোগিতা কামনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশবাসীর সহযোগিতা একান্তভাবে দরকার। তিনি বলেন, ‘তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতু এবং ভুলতা ফ্লাইওভারের নির্মাণকাজ আশা করি দ্রুতই শুরু হবে।’ সেতু নির্মাণের ফলে নারায়ণগঞ্জ কর্মচঞ্চলতা ফিরে পাবে বলেও প্রধানমন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন।
ঢাকায় সৌদি দূতাবাসের চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্স খালেদ সুলতান হুতাইবি, নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ সম্মেলনকক্ষে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের পরিচালনায় অপরপ্রান্তে জেলার পাঁচটি আসনের সাংসদ এ কে এম সেলিম ওসমান, গোলাম দস্তগীর গাজী, শামীম ওসমান, নজরুল ইসলাম বাবু, নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কর্মাস অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সহসভাপতি মঞ্জুরুল হক, নারায়ণগঞ্জ সদর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহাবুদ্দিন আহম্মেদ, বন্দর উপজেলার আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুর রশিদ উপস্থিত ​ছিলেন। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন সাংসদ লিয়াকত হোসেন ও সংর‌ক্ষিত মহিলা আসনের সাংসদ হোসেন আরা বাবলী, এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক প্রবীর কুমার সাহা, জেলা পরিষদের প্রশাসক আবদুল হাই প্রমুখ। তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতুটি নারায়ণগঞ্জ-৫ (শহর-বন্দর) আসনের সাবেক সাংসদ মরহুম নাসিম ওসমানের নামে নামকরণ করার দাবি জানানো হয়।
ভুলতা ফ্লাইওভার এক দশমিক ২৩ কিলোমিটার দীর্ঘ। এটি সরকারের নিজস্ব অর্থায়নেই হচ্ছে। বাংলাদেশ সরকারের পাশাপাশি তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতুর অর্থায়ন করছে সৌদি ফান্ড ফর ডেভেলপমেন্ট। এটি ১ দশমিক ২৯ কিলোমিটার দীর্ঘ।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন