গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার বলেছেন, সংলাপ যদিও একটি গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া, তার পরও বর্তমান সন্ত্রাসের বিপরীতে কোনো সংলাপ হতে পারে না। আগে সন্ত্রাস বন্ধ করতে হবে।
একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াতে ইসলামীর নেতা কামারুজ্জামানের রায় দ্রুত কার্যকরের দাবিতে গতকাল শুক্রবার বিকেলে প্রতিবাদী গণ-অবস্থানের সময় ইমরান এসব কথা বলেন। রাজধানীর শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে গণজাগরণ মঞ্চের এই গণ-অবস্থান বিকেল চারটা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত চলে। এ সময় মঞ্চের কর্মী-সংগঠকেরা বিভিন্ন স্লোগান দেন।
ইমরান বলেন, জামায়াতের প্রশ্নে কোনো গণতান্ত্রিক মতামত থাকতে পারে না। মূলত যুদ্ধাপরাধীর রায় কার্যকর না হওয়ায় জামায়াত-শিবির এখনো দেশে ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ড ও একের পর এক তাণ্ডব চালিয়ে যাচ্ছে। তিনি আরও বলেন, এভাবে পেট্রলবোমা মেরে নিরীহ মানুষ মারার বিপরীতে কোনো সংলাপ হতে পারে না।
গণজাগরণ মঞ্চের মিডিয়া সেল থেকে জানানো হয়, কামারুজ্জামানের ফাঁসির রায় দ্রুত কার্যকরের দাবিতে প্রতি শুক্রবার বিকেল চারটা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত শাহবাগে গণ-অবস্থান ও দেশব্যাপী সহিংসতার প্রতিবাদে ২৫ মার্চ পর্যন্ত গণস্বাক্ষর সংগ্রহ এবং কালো ব্যাজ ধারণ কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন