সব চিড়িয়াখানা, ইকোপার্ক ও উদ্যান বন্ধ

বিজ্ঞাপন
default-image

করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে আজ শুক্রবার থেকে জাতীয় চিড়িয়াখানা বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। ৩১ মার্চ পর্যন্ত ঢাকার মিরপুরে অবস্থিত ওই জাতীয় চিড়িয়াখানাটি বন্ধ থাকবে। আর পর্যটকদের জন্য দেশের জাতীয় উদ্যান ও ইকোপার্কের সবগুলো বন্ধ ঘোষণা করেছে বন বিভাগ। করোনাভাইরাস সংক্রামক পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত তা বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছে বন অধিদপ্তর।

আজ শুক্রবার মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম চিড়িয়াখানা বন্ধের জন্য মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দেন। আজ চিড়িয়াখানা বন্ধের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।

এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সবাইকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করার আহ্বান জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী বলেন, ‘চিড়িয়াখানায় দর্শনার্থীর উপস্থিতির মাধ্যমে যাতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ছড়াতে না পারে, সে জন্য আজ ২০ থেকে ৩১ মার্চ ২০২০ পর্যন্ত জাতীয় চিড়িয়াখানা বন্ধের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। এ ভাইরাসের বিস্তার রোধে যখন যেখানে যা প্রয়োজন, সে আলোকে সরকার সব ধরনের পদক্ষেপ নিচ্ছে। জনসাধারণকে এ বিষয়ে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকতে এবং সরকারকে সহযোগিতা করতে আহ্বান জানাচ্ছি।’

এদিকে বন অধিদপ্তরের আওতাধীন মিরপুরের জাতীয় উদ্ভিদ উদ্যান, মৌলভীবাজারের লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানসহ ১৩টি জাতীয় উদ্যান রয়েছে। এসব উদ্যানে প্রতিদিন কয়েক লাখ মানুষ বেড়াতে আসে। এ ছাড়া সংস্থাটির আওতায় ১০টি ইকোপার্ক রয়েছে। এগুলো মূলত পর্যটকদের জন্য প্রতিদিন খোলা থাকত। বন অধিদপ্তর থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এর সব বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে বন অধিদপ্তরের প্রধান বন সংরক্ষক শফিউল আলম চৌধুরী প্রথম আলোকে বলেন, করোনাভাইরাস পরিস্থিতি সম্পূর্ণভাবে নিয়ন্ত্রণে না আসা পর্যন্ত সবগুলো পর্যটন কেন্দ্র পুরোপুরি বন্ধ থাকবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন