রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে সব ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় স্বার্থ সংরক্ষণ সহায়ক পরিষদ। গতকাল বুধবার এ আহ্বান জানিয়ে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে সংগঠনটি।
কর্মসূচি চলাকালে পাঁচ দফা দাবির এক প্রচারপত্র বিলি করা হয়। দাবিগুলো হলো: অবিলম্বে ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের প্রথম বর্ষ ভর্তি পরীক্ষা নেওয়া, প্রশাসনিক কার্যক্রম চালু, শিক্ষার্থীদের আবাসিক হল চালু, বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদিত পদস্থ কর্মকর্তা (প্রো-ভিসি, ট্রেজারার, রেজিস্ট্রার, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক) নিয়োগ প্রদান এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মচারী ও কর্মকর্তাদের বকেয়া বেতন প্রদান।
গতকাল বেলা ১১টা থেকে এক ঘণ্টা ক্যাম্পাসের বাইরে প্রধান সড়কের পাশে এ মানববন্ধন হয়। সমাবেশে বক্তারা বলেন, রংপুরের জনগণের দীর্ঘদিনের আন্দোলনের ফসল বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় মাসের পর মাস বন্ধ থাকছে। এ অবস্থা চলতে পারে না। এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের আহ্বায়ক সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর ইদ্রিস আলী। গত ২ নভেম্বর থেকে শিক্ষক সমিতি ২৭ জন শিক্ষকের পদোন্নতির দাবি জানিয়ে আন্দোলন শুরু করে। তাঁরা প্রশাসনিক ভবনের প্রধান ফটকে তালা মেরে দেন। এরপর উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে এক দফা আন্দোলন শুরু হয়। শিক্ষক সমিতির পরে সমন্বিত অধিকার বাস্তবায়ন পরিষদের ব্যানারে এ আন্দোলন চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এ অবস্থায় গত ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে প্রথম বর্ষ পরীক্ষা বন্ধ ঘোষণা করা হয়।
উদ্ভূত পরিস্থিতি মোকাবিলায় উপাচার্য এ কে এম নূর-উন-নবী সবাইকে আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের আহ্বান জানান।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন