শ্রিংলার ঢাকা সফর

সম্পর্কের গতি অব্যাহত রাখতে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রয়েছে: নয়াদিল্লি

বিজ্ঞাপন
default-image

ভারতের পররাষ্ট্রসচিব হর্ষ বর্ধন শ্রিংলার ঢাকা সফরের প্রায় এক সপ্তাহ পর বুধবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ওই সফর নিয়ে সরকারি বিবৃতি প্রচার করল। তাতে দুই দেশের সম্পর্ককে ‘দুর্দান্ত’ আখ্যা দিয়ে বলা হয়েছে, এই সম্পর্কের গতি অব্যাহত রাখতে দুই দেশের শীর্ষ নেতৃত্ব নিজেদের মধ্যে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রেখে চলেছেন।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

দীর্ঘ বিবৃতিতে গত কয়েক বছরে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের বিভিন্ন ক্ষেত্রের অগ্রগতির কথা উল্লেখ করে বলা হয়েছে, পারস্পরিক স্বার্থ রক্ষায় এই সফর ছিল অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। এই সফর প্রমাণ করেছে, ‘প্রতিবেশী প্রথম নীতির’ ক্ষেত্রে বাংলাদেশকে ভারত কতটা গুরুত্ব দেয়।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

করোনাকালে একেবারে আচমকা ভারতের পররাষ্ট্রসচিব হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা দুই দিনের ঢাকা সফরে যান ১৮ আগস্ট। এরপর ২০ আগস্ট নয়াদিল্লিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাপ্তাহিক ব্রিফিংয়ে প্রশ্নের জবাবে এই সফর নিয়ে মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র এক বিবৃতি পাঠ করেন। সেই বিবৃতির সঙ্গে বুধবারের মন্ত্রণালয়ের প্রচারিত বিবৃতির কোনো পার্থক্য নেই। বুধবারের বিবৃতিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ, স্বাধীনতার ৫০ বছর, বঙ্গবন্ধুর স্মারক স্ট্যাম্প প্রকাশ, যৌথ উদ্‌যাপনের কর্মসূচি, কোভিড-১৯ মোকাবিলার সম্মিলিত উদ্যোগের পাশাপাশি বিভিন্ন দ্বিপক্ষীয় প্রকল্পের উল্লেখ করা হয়েছে। যেমন রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্প, মৈত্রী পাইপলাইন, একাধিক রেল যোগাযোগ। পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ে যুগ্ম পরামর্শ কমিশনের (জেসিসি) পরবর্তী বৈঠকের কথাও বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়। এতে বলা হয়েছে, চলমান প্রকল্পগুলোর কাজ তদারকির জন্য উচ্চপর্যায়ের কমিটি গঠন করা হবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন