দেশের চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে শিশুরা যেন সহিংসতার শিকার না হয়, সে ব্যাপারে যথেষ্ট ভূমিকা রাখা হচ্ছে না বলে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে সেভ দ্য চিলড্রেন। অস্থিরতা ও সহিংসতার ঘটনায় শিশুদের নিরাপত্তা ও সার্বিক কল্যাণ নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে একরকম দুঃখজনক ঔদাসীন্য দেখা যাচ্ছে।

গতকাল মঙ্গলবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সংস্থাটি এ উদ্বেগের কথা জানায়। বাংলাদেশের শিশুদের ওপর চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতা ও সহিংসতার ক্ষতিকর প্রভাব নিয়ে সংস্থাটি উদ্বিগ্ন।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, যানবাহনে অগ্নিসংযোগ, ককটেল বিস্ফোরণ ও অন্যান্য সহিংসতায় বাংলাদেশে বছরের শুরু থেকে ১২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ১১ জন শিশু নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে ১২ জন শিশু। অপর দিকে রাজনৈতিক সমাবেশ ও যানবাহন আক্রমণে শিশুদের ব্যবহার করা হয়েছে।

সেভ দ্য চিলড্রেনের এদেশীয় পরিচালক মাইকেল ম্যাকগ্রাথ স্বাক্ষরিত ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হচ্ছে, নিরবচ্ছিন্ন সহিংস পরিবেশে বাস করা শিশুদের সহিংস হয়ে ওঠার সম্ভাবনাও অনেক বেশি। বিশেষ করে ছোট শিশুরা ক্রমাগত সহিংসতার মধ্যে থেকে আত্মরক্ষার কৌশল হিসেবে নিজেরাই সহিংস হয়ে উঠতে পারে। মূলধারার রাজনৈতিক প্রক্রিয়ায় বিশ্বাস হারিয়ে ফেললে তারা এমনকি চরমপন্থার দিকেও ঝুঁকে পড়তে পারে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও উল্লেখ করা হয়, চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতার ব্যাপক প্রভাব পড়ছে শিক্ষাব্যবস্থায়। দেড় মাস ধরে স্কুলগুলো রোববার থেকে বৃহস্পতিবার বন্ধ থাকছে। এতে করে শিশুরা ক্লাস করতে পারেনি। অনেক শিশুর পরীক্ষা পিছিয়েছে বারবার।

শিশুদের নিরাপত্তা, স্বাস্থ্য আর সার্বিক কল্যাণের ওপর তাৎক্ষণিক প্রভাবের বাইরেও তাদের ওপর সহিংসতার মানসিক প্রভাব নিয়ে উদ্বেগ জানিয়েছে সেভ দ্য চিলড্রেন। সংস্থাটি বলছে, যেসব শিশু ভয়ের পরিবেশে বাস করে, তারা সহিংসতার সংস্পর্শে অনেকভাবে বদলে যেতে পারে। নিরবচ্ছিন্ন ভীতি আর এই ভীতির সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার স্নায়বিক ও শারীরবৃত্তীয় চেষ্টা শিশুদের মস্তিষ্কের বিকাশ বাধাগ্রস্ত করে। ক্ষতিগ্রস্ত করে তাদের শারীরিক, মানসিক, আচরণগত, বুদ্ধিবৃত্তিক আর সামাজিক কার্যকারিতা।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন