বিজ্ঞাপন

আমাল ক্লুনি পুরস্কার গ্রহণ করে বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের জনগণ নতুন এক নেতাকে নির্বাচিত করেছেন, যিনি বিশ্বমঞ্চে নৈতিক নেতৃত্ব দেবেন। জনগণ সেই নেতাকে প্রত্যাখ্যান করেছে, যিনি সংবাদমাধ্যমকে ‘জনগণের শত্রু’ আখ্যা দিয়েছিলেন।
২০১৮ সালে গোয়েন আইফিল প্রেস ফ্রিডম অ্যাওয়ার্ড পেয়েছিলেন ফিলিপাইনের সংবাদমাধ্যম র‍্যাপলারের সম্পাদক মারিয়া রেসা। তিনি আমাল ক্লুনির একটি সাক্ষাৎকার নিয়েছেন। সাক্ষাৎকারটি চলতি সপ্তাহে প্রকাশ করেছে সিপিজে। এতে আমাল ক্লুনি বলেছেন, ‘আপনার যদি স্বাধীন গণমাধ্যম না থাকে, তাহলে আপনি গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে পারবেন না।’

পুরস্কার গ্রহণ করে আলোকচিত্রী শহিদুল বলেন, ‘বিশ্বজুড়েই সংবাদমাধ্যম হুমকিতে রয়েছে, প্রবল আক্রমণের শিকার হচ্ছে। আমার মনে হয়, সংবাদমাধ্যমের ভূমিকা ও এর মূল্যের স্বীকৃতি দেওয়া উচিত। আমাদের মতো যাঁরা রয়েছেন, তাঁদের কাছে এই স্বীকৃতির অর্থ হবে যে আমরা একা নই।’

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন