default-image

বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর স্মরণীয় মুহূর্তে এ দেশের জনগণকে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের পক্ষ থেকে উষ্ণ অভিনন্দন জানিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেন।

আজ ২৬ মার্চ, বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস। গোটা জাতি আজ স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি উদ্‌যাপন করছে। এ উপলক্ষে এক বার্তায় বাংলাদেশের জনগণকে অভিনন্দন জানালেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

গতকাল বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্রের কার্যালয় থেকে ব্লিনকেনের বিবৃতিটি প্রচার করা হয়। আজ শুক্রবার ঢাকায় মার্কিন দূতাবাসের ওয়েবসাইটে তা প্রকাশ করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্র উভয়ই স্বাধীনতার জন্য অকুতোভয় সংগ্রামে অবতীর্ণ হয়েছিল বলে ব্লিনকেনের বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়। বিবৃতিতে ব্লিনকেন বলেন, ‘৫০ বছর ধরে আমরা অর্থনৈতিক উন্নয়ন থেকে শুরু করে শান্তি রক্ষাসহ বিভিন্ন বিষয়ে সহযোগিতা করেছি। দুই দেশের মানুষের মধ্যে বন্ধন জোরদার করেছি। ফলে আমাদের বন্ধুত্ব আগের যেকোনো সময়ের চেয়ে বেশি শক্তিশালী হয়েছে।’

ব্লিনকেন বলেন, ‘অংশীদার হিসেবে বর্তমানে আমাদের দেশের জনগণ মানবাধিকার উৎসাহিতকরণ, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব নিরসন ও করোনা মহামারি মোকাবিলায় কাজ করছে।’

বিবৃতিতে ব্লিনকেন বলেন, ‘সম্পর্কের একেবারে গোড়ার দিকে গণতান্ত্রিক মূলনীতি ও পরবর্তী ৫০ বছরে আমাদের সন্তানদের জন্য আরও ভালো একটি বিশ্ব গড়ে তোলার যৌথ আকাঙ্ক্ষার ভিত্তিতে দুই দেশের জনগণের সমৃদ্ধি-কল্যাণের প্রতি যৌথ অঙ্গীকারের জন্য আমরা সাধুবাদ জানাই।’

সুরক্ষিত-নিরাপদ একটি অঞ্চল ও সুস্থ-সমৃদ্ধ ভবিষ্যৎ গড়ে তোলার লক্ষ্যে একসঙ্গে কাজ করার পাশাপাশি বৈশ্বিক উন্নয়নে বাংলাদেশের উল্লেখযোগ্য অবদান অনস্বীকার্য বলে উল্লেখ করেন ব্লিনকেন।

সুবর্ণজয়ন্তীর মাইলফলক পেরোনোর আনন্দে উচ্ছ্বসিত সব বাংলাদেশিকে শুভেচ্ছা জানান মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন