সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেছেন, উত্তরবঙ্গ ছিল দেশের বঞ্চিত জনপদ। এখন সেই অবস্থা নেই। এই অঞ্চলে আর্থসামাজিক উন্নয়নে বিপ্লব ঘটেছে। ফলে কেউ আর না খেয়ে মরে না।
গতকাল রোববার নীলফামারীর সৈয়দপুরে বাংলাদেশ আর্মি ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির (বিএইউএসটি) উদ্বোধনকালে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। তিনি চলমান সহিংসতার প্রতি ইঙ্গিত করে বলেন, ‘আসুন, সন্ত্রাসের আগুনে নয়, জ্ঞানের আগুনে পুড়ি।’
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন বিশ্ববিদ্যালয় ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান ও ৬৬ পদাতিক ডিভিশনের এরিয়া কমান্ডার (জিওসি) মেজর জেনারেল মো. সালাহ্ উদ্দিন মিয়াজী। সৈয়দপুর সেনানিবাসের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং সেন্টার অ্যান্ড স্কুলের (ইএমই) কমান্ড্যান্ট ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকল্প পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. কবিরুজ্জামান স্বাগত বক্তব৵ দেন।
সৈয়দপুর সেনানিবাসের মাল্টিপারপাস প্রশিক্ষণ শেডে এ অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ব্যাচের শিক্ষার্থী সাকিব নেওয়াজ তন্ময়, অভিভাবক রফিকুল ইসলাম খান প্রমুখ। সভাপতিত্ব করেন বিএইউএসটির উপাচার্য ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) মো. আবুল হোসেন। উপস্থিত ছিলেন সংসদে বিরোধীদলীয় হুইপ শওকত চৌধুরী, নীলফামারী-১ আসনের সাংসদ আফতাব উদ্দিন সরকার, জেলা প্রশাসক জাকীর হোসেন প্রমুখ।
এর আগে মন্ত্রী ফলক উন্মোচনের মধ্য দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্বোধন ঘোষণা করেন। পরে তিনি ক্যাম্পাসে একটি আমগাছের চারা রোপণ করেন ও ক্যাম্পাস ঘুরে দেখেন।
বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধায়নে সৈয়দপুর সেনানিবাসের ইএমই সেন্টার অ্যান্ড স্কুল বিএইউএসটি পরিচালনা করবে। শুরুতে তিনটি বিভাগ চালু করা হয়েছে। এতে ৩০০ শিক্ষার্থী অধ্যয়নের সুযোগ পাচ্ছেন। পর্যায়ক্রমে আসন ও বিভাগ বাড়ানো হবে।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন