সোয়া ছয় কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ পাপিয়ার

বিজ্ঞাপন
default-image

যুব মহিলা লীগের আলোচিত নেত্রী শামীমা নূর পাপিয়া ও তাঁর স্বামী মফিজুর রহমান ওরফে সুমনের বিরুদ্ধে এবার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। তাঁদের বিরুদ্ধে ৬ কোটি ২৪ লাখ ১৮ হাজার টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ আনা হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঢাকা-১–এ কমিশনের উপপরিচালক শাহীন আরা মমতাজ বাদী হয়ে মামলাটি করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দুদকের পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য। 

নরসিংদী জেলা যুব মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পাপিয়া ও তাঁর স্বামীকে গত ২২ ফেব্রুয়ারি গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। গ্রেপ্তারের পর পাপিয়াকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়। এই দম্পতি এখন কারাগারে রয়েছেন।

এখন পর্যন্ত পাপিয়া ও সুমনের বিরুদ্ধে জাল নোট রাখায় একটি এবং অস্ত্র ও মাদক আইনে দুটি মামলা করেছে র‌্যাব। এ ছাড়া মুদ্রা পাচার প্রতিরোধ আইনে সিআইডি একটি মামলা করেছে। সর্বশেষ দুদক তাঁদের বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা করল। 

মামলার অভিযোগে বলা হয়, পাপিয়া ২০১৯ সালের ১২ অক্টোবর থেকে চলতি বছরের ২২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত গুলশানের ওয়েস্টিন হোটেলের প্রেসিডেনসিয়াল স্যুট এবং চেয়ারম্যান স্যুটসহ ২৫টি কক্ষে অবস্থান করে খাবার, মদ, স্পা, লন্ড্রি, বারের ব্যয় বাবদ মোট ৩ কোটি ২৩ লাখ ২৪ হাজার ৭৬০ টাকা বিল নগদ টাকায় পরিশোধ করেন। ওয়েস্টিন হোটেলে থাকা অবস্থায় তিনি প্রায় ৪০ লাখ টাকার কেনাকাটা করেছেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন