বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

স্কুলের প্রবেশমুখে টাঙানো হয়েছে করোনার সংক্রমণ রোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার নির্দেশনাসংবলিত ব্যানার। শ্রেণিকক্ষের সামনে রাখা হয়েছে মাস্ক ও সতর্কতামূলক নির্দেশনা। হাত ধোয়ার জন্য পানির ট্যাংক ও কল স্থাপনের কাজ চলছে। দৃশ্যটি চট্টগ্রাম সরকারি উচ্চবিদ্যালয়ের। করোনার কারণে প্রায় দেড় বছর বন্ধ থাকার পর আগামীকাল রোববার খুলছে সারা দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো। এর আগেই শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি নিতে স্কুলটিতে চলছে তোড়জোড়।

চট্টগ্রামের অন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেও নানা প্রস্তুতি নিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন শিক্ষক-কর্মচারীরা। মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের নির্দেশনা অনুযায়ী নানা পদক্ষেপ নিচ্ছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো।

আজ শনিবার সকালে চট্টগ্রাম সরকারি উচ্চবিদ্যালয়ে সরেজমিন দেখা যায়, মাঠের এক পাশে পানির ট্যাংক বসানো হয়েছে। চলছে নলকূপ স্থাপনের কাজ। স্কুলের ভেতরে শৌচাগারগুলো পরিষ্কার করা হয়েছে। প্রতি তলায় বসানো হয়েছে হাত ধোয়ার কল। শ্রেণিকক্ষে সামাজিক দূরত্ব মেনে রাখা হয়েছে শিক্ষার্থীদের বসার বেঞ্চগুলো। এ ছাড়া লাগানো হয়েছে স্বাস্থ্যবিধির নির্দেশনা ছাপা পোস্টার।

স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ শহীদ উল্লাহ প্রথম আলোকে বলেন, করোনা মহামারির মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে সর্বোচ্চ প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। স্কুলে ঢোকার আগে শিক্ষার্থীদের তাপমাত্রা পরিমাপ করা হবে। বাধ্যতামূলকভাবে তাদের মাস্ক পরতে হবে। কেউ অসুস্থ হয়ে পড়লে তার জন্য আইসোলেশন কক্ষও তৈরি রাখা হয়েছে। শিক্ষকদের সবাই করোনার টিকা নিয়েছেন। সব মিলিয়ে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করা হবে।

আজ সকালে স্কুলটিতে অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতে এসেছিল অনেক শিক্ষার্থী, ছিলেন তাদের অভিভাবকেরাও। এক অভিভাবক বলেন, এখন পর্যন্ত স্কুলের প্রস্তুতি সন্তোষজনক। সামনের দিনগুলোয় এই ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে হবে।

এদিকে আজ সকালে স্কুল খোলার প্রস্তুতি কার্যক্রম পরিদর্শন করেছেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ মমিনুর রহমান। তিনি সরকারি ন্যাশনাল প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ডা. খাস্তগীর সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয় পরিদর্শন করেন।

ডিসি মোহাম্মদ মোমিনুর রহমান বলেন, দীর্ঘ দেড় বছরের বেশি সময় পর আগামীকাল স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়া হচ্ছে। এর মধ্যেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার প্রস্তুতি শেষ করেছে। জেলা প্রশাসন কার্যালয় থেকে এসব বিষয় তদারক করার জন্য কমিটি গঠন করা হয়েছে।

সাংবাদিকদের জেলা প্রশাসক জানান, আজ সারা দিন চট্টগ্রামের সব স্কুল পরিদর্শন করা হবে। কোথাও কোনো ঘাটতি থাকলে আগামীকাল স্কুল খোলার আগেই তা সমাধান করা হবে।

সকালে সরকারি ন্যাশনাল প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শনের সময় ডিসি মোহাম্মদ মোমিনুর রহমান স্কুলটির শ্রেণিকক্ষে লাগানো পুরোনো পোস্টার খুলে পরিষ্কার করার পরামর্শ দেন। পাশাপাশি স্কুলটির আশপাশ পরিষ্কার করতে বলেন। পরে তিনি খাস্তগির সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয় পরিদর্শন করেন।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন