রাজশাহী জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ইফতে খায়ের আলম বলেন, ঈশ্বরদীর পাকশি এলাকা থেকে মেয়র মুক্তার আলীকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে এসে তাঁর বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এ সময় তাঁর বাড়ি থেকে নগদ ১ লাখ ৩২ হাজার টাকা, ১০০ গ্রাম গাঁজা, ৪ বোতল ফেনসিডিল ও একটি চাকু উদ্ধার করা হয়। আসামিকে আজ আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত পৌর নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দ্বন্দ্বের জেরে মঙ্গলবার রাতে বাড়িতে ঢুকে স্ত্রী-পুত্রসহ কলেজশিক্ষক মনোয়ার হোসেনকে মারধর করেন আড়ানী পৌরসভার মেয়র মুক্তার আলী। এ ঘটনায় রাতেই থানায় মামলা করেন মনোয়ার হোসেন। পরে রাতেই মেয়রের বাড়িতে অভিযানে যায় পুলিশ। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যান মেয়র।

এ সময় বাড়ি থেকে মেয়রের স্ত্রী জেসমিন আক্তার (৪০), ভাতিজা সোহান (২৫) ও শান্তকে (২৩) আটক করা হয়। একই সঙ্গে তল্লাশি চালিয়ে বাড়ি থেকে ১টি বিদেশি পিস্তল, ৪টি ম্যাগাজিন, ১৭টি তাজা গুলি, ৪টি গুলির খোসা, ১টি ওয়ান শুটার গান, ১টি দেশে তৈরি বন্দুক, ১টি এয়ার রাইফেল, শটগানের ২৬টি গুলি, ১০ গ্রাম গাঁজা, ৭ পুরিয়া হেরোইন, ২০টি ইয়াবা বড়ি, নগদ ৯৪ লাখ ৯৮ হাজার টাকা ও মেয়রের স্বাক্ষর করা ১৮ লাখ টাকার চেক উদ্ধার করা হয়।