default-image

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, স্বাস্থ্যব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে। সরকার কারও কথা শোনে না। আজ বুধবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালের প্লাজমা সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।
বিএনপির সাংসদ রুমিন ফারহানা করোনাভাইরাস মুক্ত হওয়ার পর আজ গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালের প্লাজমা সেন্টারে প্লাজমা দেন। তাঁর প্লাজমা দেওয়া শেষে এ সংবাদ সম্মেলন করা হয়। সেখানে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘আমাদের স্বাস্থ্যব্যবস্থা পুরোপুরি ভেঙে পড়েছে। সরকার কারও কথা শুনতে রাজি না। তারা যা ইচ্ছা তাই করছে।’

বিজ্ঞাপন

অক্সিজেনের প্রয়োজনীয়তার কথা উল্লেখ করে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘আমি মার্চ মাসে বলেছি, করোনার জন্য আমাদের ভেন্টিলেটরের চেয়ে অক্সিজেনের সাপ্লাই বেশি আছে কি না দেখেন।’ বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে অক্সিজেনের বেশি দাম নিচ্ছে বলে অভিযোগ করে তিনি বলেন, ‘এটা প্রতারণা। যে পরিমাণ অক্সিজেনের জন্য খরচ পড়ে ১ হাজার ২৭০ টাকা। তার জন্য লাখ টাকার বিলও দেখেছি।’

সরকারের উদ্দেশে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, অক্সিজেনের মূল্য নির্ধারণ করে না দিলে জনগণকে প্রতারণার হাত থেকে রেহাই দেওয়া যাবে না।

বিজ্ঞাপন

বিএনপির সাংসদ রুমিন ফারহানাকে ধন্যবাদ জানিয়ে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, তাঁর (রুমিন) এই প্লাজমা থেকে পাঁচজন উপকৃত হবেন। আমরা আহ্বান করছি অন্যান্য সাংসদ যাঁরা সুস্থ হয়েছেন, তাঁরা প্লাজমা দিতে এগিয়ে আসবেন। তিনি ভালো উদাহরণ সৃষ্টি করেছেন।’

প্লাজমা দেওয়ার পর রুমিন ফারহানা বলেন, অক্সিজেন, ভেন্টিলেটরসহ নানান কিছুর অভাব। সরকারি ব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে। এখন একে অপরের পাশে দাঁড়াতে হবে। তাই করোনা নেগেটিভ জানার পর তিনি প্লাজমা দিতে চলে এসেছেন। সবাইকে সাবধানে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন এই সাংসদ।

মন্তব্য পড়ুন 0