default-image

মধ্য ইউরোপের দেশ স্লোভেনিয়ায় বাংলাদেশিসহ শতাধিক অভিবাসীকে আটক করেছে দেশটির পুলিশ। ক্রোয়েশিয়া থেকে দেশটিতে প্রবেশের পর গত রোববার স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় সীমান্তের বিভিন্ন এলাকা থেকে ওই অভিবাসীদের আটক করা হয় বলে গতকাল সোমবার জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

বার্তা সংস্থা এএফপি জানায়, ক্রোয়েশিয়ার সঙ্গে স্লোভেনিয়ার দক্ষিণাঞ্চলীয় সীমান্তবর্তী শহর ইলিরস্কা বিস্ত্রিকার পুলিশের মুখপাত্র আনিতা লেস্কোভেক বলেন, রোববার সন্ধ্যায় শহরের বিভিন্ন এলাকা থেকে মোট ১১৩ জন অভিবাসীকে আটক করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

স্লোভেনিয়ার পুলিশ বলেছে, আটককৃত অভিবাসীদের বেশির ভাগই বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের নাগরিক। তাঁদের ক্রোয়েশিয়ায় ফেরত পাঠানো হতে পারে।

ইলিরস্কা বিস্ত্রিকার মেয়র এমিল রয়েস সরকারনিয়ন্ত্রিত রেডিও স্লোভেনিয়াকে বলেছেন, সাম্প্রতিক সময়ে দেশে অভিবাসীদের এভাবে প্রবেশ করার চেষ্টা বেড়ে গেছে।

ইলিরস্কা বিস্ত্রিকায় ১১৩ জন আটক হওয়াসহ সাম্প্রতিক সময়ে যেসব ঘটনা ঘটেছে, তাতে প্রমাণ হয় যে মানব পাচারের সংঘবদ্ধ বাজার শক্তিশালী হয়েছে।
অ্যালেস হোয়েস, স্লোভেনিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্লোভেনিয়ার সংবাদ সংস্থা এসটিএ বলেছে, ওই ১১৩ জন অভিবাসী ছাড়াও ইলিরস্কা বিস্ত্রিকার কাছাকাছি এলাকা থেকে আরও প্রায় ৩০ জনকে আটক করা হয়। এ ছাড়া রাজধানী লুবিয়ানার উত্তর-পূর্বাঞ্চলে একটি ভ্যান থেকে আরও ৩৪ জনকে আটক করা হয়েছে। ভ্যানটি চালাচ্ছিলেন বেলজিয়ামের এক নাগরিক।

বিজ্ঞাপন

স্লোভেনিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যালেস হোয়েস সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ইলিরস্কা বিস্ত্রিকায় ১১৩ জন আটক হওয়াসহ সাম্প্রতিক সময়ে যেসব ঘটনা ঘটেছে, তাতে প্রমাণ হয় যে মানব পাচারের সংঘবদ্ধ বাজার শক্তিশালী হয়েছে। তিনি আরও জানান, স্লোভেনিয়ায় গ্রেপ্তার হয়ে প্রায় ১০০ জন মানব পাচারকারী দেশটির বিভিন্ন জেলে রয়েছেন।

কর্তৃপক্ষ বলেছে, চলতি বছরের প্রথম আট মাসে ১০ হাজার ২২৩ বার অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রম করে স্লোভেনিয়ায় ঢোকার চেষ্টা করেছেন অভিবাসনপ্রত্যাশীরা। আগের বছরের তুলনায় এ হার ৩ দশমিক ৩ শতাংশ বেশি। পুলিশের পরিসংখ্যান বলছে, চলতি বছর যে অভিবাসনপ্রত্যাশীরা স্লোভেনিয়ায় প্রবেশের চেষ্টা করেছেন, তাঁদের বেশির ভাগই পাকিস্তান ও মরক্কোর নাগরিক।

তবে কর্তৃপক্ষ এ-ও বলছে, প্রতিবেশী ক্রোয়েশিয়া থেকে অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রম করে অভিবাসীদের স্লোভেনিয়ায় ঢুকে পড়ার ঘটনা নতুন না হলেও ইলিরস্কা বিস্ত্রিকা শহরে যা ঘটেছে, তা বিরলই বলা চলে। এভাবে শতাধিক অভিবাসী এক দিনে এর আগে সাম্প্রতিক ইতিহাসে আটক হয়নি দেশটিতে।

মন্তব্য পড়ুন 0