default-image

ভার্চ্যুয়াল উপস্থিতিতে ২ মে থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বিচারকাজ পরিচালনার জন্য হাইকোর্টের আরও তিনটি দ্বৈত বেঞ্চ গঠন করে দিয়েছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। বেঞ্চ গঠনসংক্রান্ত আদেশ সুপ্রিম কোর্টের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে। এ নিয়ে চলমান ‘সর্বাত্মক লকডাউনে’ হাইকোর্টে বেঞ্চ সংখ্যা দাঁড়াল নয়ে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সরকার প্রথমে ৫ এপ্রিল থেকে ৭ দিনের জন্য গণপরিবহন চলাচলসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ আরোপ করে। পরে তা আরও দুই দিন বাড়ানো হয়।

বিজ্ঞাপন

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না আসায় ১৪ থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত আরও কঠোর বিধিনিষেধ দিয়ে ‘সর্বাত্মক লকডাউন’ শুরু হয়। নির্ধারিত এই সময় শেষ হওয়ার আগে ২০ এপ্রিল তা আরও এক সপ্তাহ বাড়ানো হয়। এরপর ২৮ এপ্রিল তা ৫ মে পর্যন্ত বাড়ানো হয়। এ অবস্থায় আজ নতুন তিনটি বেঞ্চ গঠন করে দিলেন প্রধান বিচারপতি।

বেঞ্চ গঠনসংক্রান্ত আদেশে দেখা যায়, বিচারপতি ফারাহ মাহবুব ও বিচারপতি এস এম মনিরুজ্জামান; বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথ ও বিচারপতি এ এস এম আব্দুল মোবিন এবং বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি মো. সোহরাওয়ারদীর সমন্বয়ে নতুন তিনটি দ্বৈত বেঞ্চ গঠন করা হয়।

আগে ১২ এপ্রিল থেকে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে সপ্তাহে তিন দিন এবং চেম্বার কোর্টে দুই দিন ভার্চ্যুয়াল উপস্থিতিতে বিচারকাজ চলছে। আর ভার্চ্যুয়াল উপস্থিতিতে হাইকোর্টে পৃথক ছয়টি বেঞ্চে বিচারকাজ চলছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন