হাসপাতালে অভিযান চালানো যাবে, তবে...

বিজ্ঞাপন

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর জরুরি প্রয়োজন হলে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে সমন্বয় করে হাসপাতালগুলোতে অভিযান পরিচালনার অনুরোধ করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। অন্যথায় সরকারি-বেসরকারি যেকোনো হাসপাতালে এ ধরনের অভিযান পরিচালনা থেকে বিরত থাকতে অনুরোধ করা হয়েছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ মঙ্গলবার এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিবের কাছে চিঠি দিয়ে এই অনুরোধ করেছে। এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের সঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেকের আলোচনা হয়েছে বলেও চিঠিতে উল্লেখ করা হয়।

স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের একজন অতিরিক্ত সচিব প্রথম আলোকে বলেন, হাসপাতালগুলোকে লাইসেন্সের জন্য মাসখানেক সময় দেওয়া হয়েছে। তাই এই সময়ে লাইসেন্সের জন্য যেন আপাতত অভিযান চালানো না হয় সেজন্যই মূলত এটি বলা হয়েছে।

জননিরাপত্তা বিভাগকে দেওয়া চিঠিতে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ বলেছে, করোনা মহামারির প্রার্দুভাবের পরে দেশের সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিভিন্ন শাখার সদস্যরা নানা বিষয়ে অভিযান পরিচালনা করছেন। একটি হাসপাতালে একাধিক আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অভিযান পরিচালনা করায় স্বাভাবিক চিকিৎসা কার্যক্রম ব্যহত হচ্ছে এবং এ কারণে স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানগুলোতে এক ধরনের চাপা অসন্তোষ বিরাজ করছে।

ইতিমধ্যে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ থেকে সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালের সার্বিক কার্যক্রম পরিবীক্ষণ করার জন্য একটি টাস্কফোর্স কমিটি গঠন করা হয়েছে, যেখানে জননিরাপত্তা বিভাগের একজন যুগ্ম সচিব সদস্য হিসেবে আছেন। ভবিষ্যতে স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কোনো অভিযান পরিচালনা করার প্রয়োজনীয়তা দেখা দিলে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সঙ্গে পরামর্শ করে তা করা যাবে।
বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন