বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আল্লামা শাহ আহমদ শফী ফাউন্ডেশন এই দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে। শফীর ছোট ছেলে ও ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মাওলানা আনাস মাদানীর সভাপতিত্বে মাহফিলে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হেফাজত নেতা মুফতি ফয়জুল্লাহ, মঈনুদ্দীন রুহী, আবদুল জব্বার, নুরুল ইসলাম, শামসুদ্দিন আফতাব, মুফতি আবদুর রহমান সোবহানী ও আহমদ উল্লাহ।

মাহফিলে বক্তারা আহমদ শফীর জীবনের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন। এ সময় তাঁরা এই হত্যাকাণ্ডের বিচার দাবি করেন।

২০২০ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর ঢাকার একটি হাসপাতালে মারা যান আহমদ শফী। পরে ওই বছরের ১৭ ডিসেম্বর চট্টগ্রামের আদালতে হত্যার অভিযোগে নালিশি মামলা করেন তাঁর শ্যালক মোহাম্মদ মঈন উদ্দিন। মামলায় হেফাজতের ৩৬ জন নেতা-কর্মীকে আসামি করা হয়।

মামলার আরজিতে বলা হয়, অসুস্থ হলেও আহমদ শফীকে চট্টগ্রামের হাটহাজারী মাদ্রাসায় তাঁর কক্ষে আটকে রাখা হয়। আসামিদের ইন্ধনে তাঁর কক্ষে হামলা ও ভাঙচুর চালানো হয়। মাদ্রাসা মাঠে আহমদ শফীকে বহনকারী অ্যাম্বুলেন্স আটকে রাখা হয়। আদালত মামলাটি তদন্তের জন্য পিবিআইকে নির্দেশ দেন।

এরপর গত বছরের ১২ এপ্রিল পিবিআই মোট ৪৩ জনকে অভিযুক্ত করে প্রতিবেদন দেয়। অভিযোগপত্রে নাম রয়েছে হেফাজতের সাবেক আমির জুনায়েদ বাবুনগরীর। তবে গত বছরের ১৯ আগস্ট তিনি মারা যান। পিবিআইয়ের দেওয়া প্রতিবেদনটি চট্টগ্রাম আদালতে গ্রহণের শুনানির জন্য রয়েছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন