default-image

ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য তথাগত রায় বলেছেন, বাংলাদেশের আওয়ামী লীগ সরকারের ওপর ভারতের বর্তমান বিজেপি সরকারের সম্পূর্ণ সমর্থন রয়েছে। এটা জলের মতো পরিষ্কার। তাই তিনি এ দেশের হিন্দু সম্প্রদায়কে এ সরকারকে পূর্ণ সমর্থন দেওয়ার আহ্বান জানান। তিনি মনে করেন, হিন্দু সম্প্রদায়ের জন্য বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারের চেয়ে ভালো কিছু হতে পারে না।
আজ শুক্রবার রাজধানীর কাকরাইলে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন হলঘরে বেদান্ত সংস্কৃতি মঞ্চ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির সাবেক সভাপতি তথাগত রায় বলেন, ‘যদিও ভারত একটি দেশ। তারা আরেকটি দেশের সঙ্গে কাজ করবে এটি স্বাভাবিক। সে ক্ষেত্রে বিজেপি নেতা হিসেবে আমার বলা উচিত না, তার পরও আমি আপনাদের জানাতে চাই বিজেপি সরকার উপলব্ধি করেছে বাংলাদেশের আওয়ামী লীগ সরকারকে সমর্থন দেওয়া উচিত এবং সেই কাজটি তারা করেছে। এটা আমি আপনাদের নিশ্চিত করেই বলতে পারি।’

অনুষ্ঠানে উপস্থিত হিন্দু নেতাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আপনারা যদি প্রকাশ্যে এই সরকারকে সমর্থন না করেন, তাহলে সরকার তো আপনাদের অবস্থা ভালোভাবে বুঝতে পারবে না। আপনারা ভাবুন। হিন্দুদের নিরাপত্তার জন্য আওয়ামী লীগ সরকার ছাড়া অন্য রাজনৈতিক দলগুলোর ওপর কী ভরসা করা যায়? যদি তা না হয়, তাহলে হিন্দু সম্প্রদায়কে সর্বশক্তি দিয়ে পুরোপুরিভাবে এ সরকারকে সমর্থন দিতে হবে।’

বিজেপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির এই সদস্য আরও বলেন, বাংলাদেশে যাঁরা হিন্দু আছেন, তাঁদের রাজনৈতিকভাবে সচেতন হতে হবে এবং নিজেদের স্বার্থ বুঝতে হবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত। তিনি বলেন, ‘বিজেপিকে সাম্প্রদায়িক দল বলে আমি মনে করি না। তারা যে হিন্দুত্ববাদে বিশ্বাস করে এটা তাদের রাজনৈতিক কৌশল। ভারতের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক ভালো। আশা করি, দুই দেশের মধ্যে সীমান্ত ও তিস্তা চুক্তি হয়ে যাবে। বাংলাদেশের যা যা পাওনা সেটা পাব।’

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন বিজেপির কেন্দ্রীয় গবেষণা শাখার সদস্য ধনঞ্জয় কুমার সিং, পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির সহসভাপতি সুভাষ সরকার, বাংলাদেশের সাংসদ পঙ্কজ দেবনাথ, সুকুমার রঞ্জন প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0