দেশের সংকটময় পরিস্থিতি থেকে উত্তরণের দাবিতে ‘সবার ওপরে দেশ’, ‘দেশ বাঁচাও, অর্থনীতি বাঁচাও’—এ স্লোগান নিয়ে গতকাল রোববার সারা দেশে প্রতীকী অবস্থান ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন ব্যবসায়ীরা। বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতির (এফবিসিসিআই) আহ্বানে দুপুর ১২টা থেকে সোয়া ১২টা পর্যন্ত এ কর্মসূচি পালন করা হয়। এ ছাড়া সন্ত্রাস ও নাশকতার প্রতিবাদে বিভিন্ন স্থানে নানা কর্মসূচি পালন করেছে ১৪ দল।
আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক, আঞ্চলিক কার্যালয় ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর:
রাজশাহী: শহরের অলকা মোড় ও সাহেববাজারে প্রতীকী অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন ব্যবসায়ীরা। এতে ব্যবসায়ী নেতাসহ বিভিন্ন স্তরের ব্যবসায়ীরা অংশ নেন। ১৫ মিনিটের এ কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী বণিক সমিতির সভাপতি মনিরুজ্জামান মনির, পরিচালক সেকেন্দার আলী, সাবেক সভাপতি হাসেন আলী, আবু বক্কর প্রমুখ। এদিকে সন্ত্রাস ও নাশকতার প্রতিবাদে বিকেলে নগরের আলুপট্টি থেকে ফায়ার সার্ভিসের মোড় পর্যন্ত দীর্ঘ মানববন্ধন করেছে ১৪ দল। এতে ১৪ দলসহ বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীরা অংশ নেন।
আদমদীঘি (বগুড়া): নওগাঁয় হরতাল, নাশকতা ও অবরোধবিরোধী মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ হয়েছে। ১৪ দল বেলা সাড়ে তিনটা থেকে সাড়ে চারটা পর্যন্ত এ কর্মসূচি পালন করে। জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে থেকে শুরু হয়ে শহরের ঢাকা বাসস্ট্যান্ড থেকে বালুডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড এলাকাজুড়ে মানববন্ধন ও সমাবেশ হয়। মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাংসদ মুক্তিযোদ্ধা আবদুল মালেক। বক্তব্য দেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাংসদ মুক্তিযোদ্ধা সাধন চন্দ্র মজুমদার, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহসভাপতি এ কিউ এম ওয়াহিদুল ইসলাম খান প্রমুখ।
সিরাজগঞ্জ: ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে এসএস রোডে মানববন্ধন করেন ব্যবসায়ীরা। এতে সভাপতিত্ব করেন ইন্ডাস্ট্রির প্রেসিডেন্ট আবু ইউসুফ। কর্মসূচির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে বক্তব্য দেন পুলিশ সুপার এস এম এমরান হোসেন, সিরাজগঞ্জ জজ কোর্টের পিপি আবদুর রহমান, বি এম এ সভাপতি জহুরুল হক, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু মোহাম্মদ গোলাম কিবরিয়া প্রমুখ।
জয়পুরহাট: শহরের কেন্দ্রীয় মসজিদ চত্বর এলাকা থেকে বাটার মোড় পর্যন্ত প্রধান সড়কে জাতীয় পতাকা হাতে নিয়ে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন জয়পুরহাটের ব্যবসায়ীরা।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ: শান্তি, রাজনৈতিক সমঝোতা ও জানমালের নিরাপত্তার দাবিতে চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রেসক্লাব ও ক্লাব সুপার মার্কেটের সামনে পতাকা হাতে ব্যবসায়ীরা মানববন্ধন করেছেন। মানববন্ধনে এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ বণিক সমিতির সভাপতি আবদুল ওয়াহেদ বলেন, চলমান রাজনৈতিক কর্মসূচির কারণে ব্যবসা-বাণিজ্য চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।
লালমনিরহাট: শহরের মোগলহাট রেলগেট চত্বরে জাতীয় পতাকা হাতে নিয়ে ব্যবসায়ীরা অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন। বক্তব্য দেন জেলা বণিক সমিতির সভাপতি শেখ আবদুল হামিদ ও এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক মো. সিরাজুল হক প্রমুখ। এদিকে মানুষ পুড়িয়ে মারা ও নাশকতার প্রতিবাদে জেলার পাঁচটি উপজেলায় বিকেলে মানববন্ধন করেছে ১৪ দল। কর্মসূচিতে আওয়ামী লীগসহ ১৪ দলের হাজার-হাজার নেতা-কর্মী, সমর্থক ও বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশ নেন। বক্তব্য দেন সাংসদ ইঞ্জিনিয়ার আবু সাঈদ দুলাল, মহিলা সাংসদ সফুরা বেগম রুমী প্রমুখ।
নীলফামারী: চেম্বার ভবনের সামনে কর্মসূচিতে নীলসাগর গ্রুপ, নূহা অটো রাইস মিল, শামসুল হক অটো রাইস মিল, নীলফামারী ফার্টিলাইজার অ্যাসোসিয়েশন, জেলা বাস মালিক গ্রুপ, বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠন, ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি ও মালিকেরা অংশ নেন। বণিক সমিতির সভাপতি সফিকুল আলম বলেন, হরতাল-অবরোধ অচলাবস্থার সৃষ্টি করেছে ব্যবসা-বাণিজ্যে। ফলে থেমে গেছে অর্থনীতির চাকা। এদিকে সহিংসতা ও নৈরাজ্য সৃষ্টির প্রতিবাদে নীলফামারীতে মানববন্ধন করেছে জেলা ইসলামী আন্দোলন। বেলা ১১টা থেকে শহরের চৌরঙ্গী মোড়ে ঘণ্টাব্যাপী ওই মানববন্ধন হয়। পরে সংগঠনের জেলা শাখার সভাপতি শেখ আবদুস সামাদের সভাপতিত্বে সমাবেশ হয়।
কুড়িগ্রাম: শহরের সর্বত্র নিজ নিজ ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন ব্যবসায়ীরা। বণিক সমিতির আয়োজনে এ কর্মসূচিতে বক্তব্য দেন দোকান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলাম, বস্ত্র ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক রওশন আমিন প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন