default-image

নাট্যজন মামুনুর রশীদ তাঁর কাজের মাধ্যমে প্রজন্মের পর প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করে যাচ্ছেন। বাংলাদেশে নাট্য আন্দোলনের শুরুতে তিনিই শ্রেণিসংগ্রাম ও শ্রেণিদ্বন্দ্বের বিষয়টি সফলভাবে মঞ্চে তুলে ধরেছেন। তাঁর বিভিন্ন নাট্যকর্মে সমাজতাত্ত্বিক, রাজনৈতিক দর্শন ও শিল্পদর্শন একীভূত হয়েছে।
গতকাল শুক্রবার নগরের জামালখান এলাকায় বই বিপণিকেন্দ্র বাতিঘরে মামুনুর রশীদ: থিয়েটারের পথে শীর্ষক বইয়ের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন। নাট্যব্যক্তিত্ব মামুনুর রশীদের কর্ম ও জীবনীভিত্তিক বইটি রচনা করেছেন ফয়েজ জহির ও হাসান শাহরিয়ার।
অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অনুপম সেন, নাসির উদ্দীন ইউসুফ, শিল্পী ঢালী আল মামুন, নাট্যজন আহমেদ ইকবাল হায়দার, শিশির দত্ত, বইটির রচয়িতা ফয়েজ জহির, বইটির ইংরেজি অনুবাদক শহীদুল মামুন প্রমুখ। অনুষ্ঠানে মামুনুর রশীদ তাঁর জীবন ও পথচলা নিয়ে কথা বলেন ।
প্রকাশনা অনুষ্ঠানে অনুপম সেন বলেন, ‘মামুনকে নিয়ে লেখা বইটি অনেক আনন্দ নিয়ে পড়েছি। বইটিতে কিছু ত্রুটি থাকতে পারে। কিন্তু ব্যক্তি মামুন ও তাঁর কাজকে সফলভাবে তুলে ধরা হয়েছে এই বইয়ে।’
নাসির উদ্দীন ইউসুফ বলেন, ‘মামুনুর রশীদের মতো বহুমাত্রিক চলন ও বর্ণিল জীবনের মানুষকে শুধু একটি বইয়ের মাধ্যমে প্রকাশ করা সম্ভব নয়। আমাদের ব্যক্তি ও শিল্পজীবনে তিনি অপরিহার্য মানুষ হয়ে আছেন। মঞ্চনাটকে শ্রেণিসংগ্রাম ও মার্ক্সিস্ট দৃষ্টিভঙ্গিকে তিনিই প্রথম নির্মোহভাবে তুলে এনেছেন।’
ঢালী আল মামুন বলেন, জীবনীভিত্তিক বই শুধু একজন ব্যক্তির ওপরেই আলোকপাত করে না। একই সঙ্গে তা একটি জনপদ, সমাজ ও পারিপার্শ্বিকতাকেও তুলে ধরে।
অনুষ্ঠানে মামুনুর রশীদ বলেন, ‘নিজেকে শিল্পী নয়, প্রচারক মনে করি। দেশের প্রান্তিক মানুষের জীবনের গল্প, সুখ, দুঃখকে প্রচার করতে চাই।’

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন