বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সুশান্তের ভাই সজল মজুমদার প্রথম আলোকে বলেন, তাঁর ভাই পুরান ঢাকার একটি ক্লিনিকের ফিজিওথেরাপিস্ট হিসেবে কর্মরত। গতকাল রাতে হাসপাতালে দায়িত্ব শেষে তিনি যখন সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের বাসায় ফিরছিলেন, তখন এ ঘটনা ঘটে।

যাত্রীবেশে অজ্ঞান পার্টির সদস্য তাঁর ভাইয়ের মুঠোফোনসহ অন্য জিনিসপত্র ছিনিয়ে নেয়। প্রথমে তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে তাঁকে বেসরকারি একটি ক্লিনিকের আইসিইউতে রাখা হয়েছে। তাঁর ভাইয়ের এখনো জ্ঞান ফেরেনি।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আবদুল কুদ্দুস প্রথম আলোকে বলেন, যাত্রীবেশে অজ্ঞান পার্টির সদস্যরা সুশান্ত মজুমদারকে অচেতন করে তাঁর মালপত্র লুট করে নেয়। এ ঘটনায় আরিফ নামের একজনকে আটক করা হয়েছে। পুরো ঘটনা উদ্‌ঘাটনের চেষ্টা চলছে।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন