উদ্বোধনী পর্বে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন আইইবির প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী মো. নূরুল হুদা। সারা দেশের প্রকৌশলীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, যাঁর যাঁর অবস্থান থেকে সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে, সুনামের সঙ্গে কাজ করে প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করতে হবে। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর ভিশন ২০৪১ এবং ‘ডেলটা ২১০০’ বাস্তবায়নের ক্ষেত্রেও তাঁদের অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে।

এরপর নূরুল হুদা উপস্থিত প্রকৌশলীদের শপথবাক্য পাঠ করান। এ সময় প্রকৌশলীরা সব সময় দেশ ও জাতির সেবায় নিজেদের নিয়োজিত রাখার শপথ নেন। উদ্বোধনী পর্বে আইইবির সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী মো. শাহাদাৎ হোসেন জানান, ঢাকা ছাড়াও একই দিনে সারা দেশে আইইবির ১৮টি কেন্দ্র, ৩৩টি উপকেন্দ্র এবং ১৩টি ওভারসিজ চ্যাপটারেও একই ধরনের কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে।

এরপর মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্ভের সামনে থেকে একটি শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি মৎস্য ভবন মোড় ঘুরে আবার আইইবি প্রাঙ্গণে এসে শেষ হয়।

এ সময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আইইবির ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী মোহাম্মদ হোসাইন, ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী খন্দকার মনজুর মোর্শেদ, সহকারী সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী মো. রনক আহসান প্রমুখ।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন