default-image

কর্মপরিবেশের উন্নতি হলেও শিল্পকারখানাগুলোতে শ্রমিকদের ট্রেড ইউনিয়ন আন্দোলন গড়ে ওঠেনি। সুসংগঠিত নন বলে শ্রমিকের বেতনের যৌথ দর-কষাকষি ও ট্রেড ইউনিয়ন অধিকার পুরোপুরি নিশ্চিত হয়নি। এতে শ্রমিকদের ট্রেড ইউনিয়ন আন্দোলন একটা সংকটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে।

রাজধানীর রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশের (আইইবি) সেমিনারে রোববার সকালে এক সভায় এসব কথা বলেন শ্রমিক অধিকার নিয়ে কাজ করা সংগঠকেরা। বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব লেবার স্টাডিজের (বিলস) সাধারণ সভা ও সম্মেলন উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার (আইএলও) বাংলাদেশের পরিচালক তুমো পুতিয়েনাইন বলেন, বাংলাদেশের ক্রমেই উন্নতি চলমান—এ নিয়ে ভবিষ্যদ্বাণী করা যায়। কিন্তু এ উন্নতি দেশের সবার হচ্ছে না। শ্রমিকেরা পিছিয়ে থাকছে। তিনি বলেন, শ্রমবাজারের সব ক্ষেত্রে শোভন কাজ এখনো নিশ্চিত সম্ভব হয়নি। শ্রমিকের অধিকার আদায়ে ট্রেড ইউনিয়নের দক্ষতা বৃদ্ধি এখন সময়ের দাবি।

সভাপতির বক্তব্যে বিলসের চেয়ারম্যান মো. হাবিবুর রহমান সিরাজ বলেন, শ্রমিক অধিকার সুরক্ষার জন্য বিলস কাজ করে যাচ্ছে। তবে শ্রমিকের অধিকার প্রতিষ্ঠার দায়িত্ব ট্রেড ইউনিয়নগুলোর। তিনি বলেন, ‘আমি সরকারি দলের প্রতিনিধিত্ব করি। কিন্তু আমিও বলি, বাংলাদেশে ট্রেড ইউনিয়ন আন্দোলন অনুপস্থিত। শ্রমিক কর্মচারী ঐক্য পরিষদের (স্কপ) যে ঐতিহাসিক চুক্তি, তাতে আমিও স্বাক্ষরদাতা। কিন্তু স্কপের কার্যক্রম কার্যত অদৃশ্য। এর কারণ, শ্রমিকেরা সুসংগঠিত নন।’

ট্রেড ইউনিয়ন আন্দোলন একটা সংকটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে বলে মন্তব্য করেন শ্রমিক কর্মচারী ঐক্য পরিষদের (স্কপ) অন্যতম যুগ্ম সমন্বয়কারী কামরুল আহসান। তিনি বলেন, স্কপ এখন আর অতটা শক্তিশালী নয়। এর কারণ, দেশের ৪ কোটি ৮ লাখ শ্রমিকের খুব অল্পসংখ্যক সংগঠিত। ঢাকায় কেন্দ্রীয় আন্দোলন হলেও তা সামগ্রিকভাবে দাঁড়াতে পারছে না।

বিলসের যুগ্ম মহাসচিব ওয়াজেদুল ইসলাম খানের পরিচালনায় সভায় আরও বক্তব্য দেন ফ্রেডরিক ইবার্ট স্টিফটুংয়ের আবাসিক প্রতিনিধি টিনা ব্লোম, বিলসের মহাসচিব নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান শিরীন আখতার প্রমুখ।

নির্বাহী পরিষদের নির্বাচন
‘তথ্য, জ্ঞান, যুক্তি, ঐক্য ও সংহতি অধিকার সুরক্ষার শক্তি’ স্লোগানে আজ বিলসের দিনব্যাপী সাধারণ সভা ও চারটি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। বিকেলে সাধারণ সভায় বিলসের নির্বাহী পরিষদ কমিটি নির্বাচিত হয়। এতে মো. হাবিবুর রহমান সিরাজ চেয়ারম্যান ও নজরুল ইসলাম খান মহাসচিব পদে পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0