বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কে এম নূরুল হুদা বলেন, প্রাথমিক পর্যায়ে যে নির্বাচনগুলো হয়েছে, তাতে নির্বাচন প্রতিযোগিতামূলক ও অংশগ্রহণমূলক হয়েছে এবং যার কারণে ৭৪ শতাংশ লোক তাঁদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন।

সভার সূচনা বক্তব্যে সিইসি বলেন, ‘সামগ্রিক অর্থে নির্বাচন সফল হয়েছে। অল্প কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা, দুর্ঘটনা ও হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। যেগুলো কিছুতেই কাম্য নয়। তবুও নির্বাচনের মানদণ্ড যদি ভোট প্রদান হয়, তাহলে আমি বলব, গত নির্বাচনগুলোতে গড়ে ৭৪ শতাংশ ভোট পড়েছে।’ তিনি আরও বলেন, স্থানীয় সরকার পর্যায়ের নির্বাচনগুলোতে উত্তেজনা ও উত্তাপ থাকে। সেই উত্তেজনা ও উত্তাপ কখনো কখনো সহিংসতায় পরিণত হয়, যা কখনোই আমাদের কাম্য নয়।

আইনশৃঙ্খলা–সংক্রান্ত বিশেষ সভায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও চার নির্বাচন কমিশনার ছাড়াও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব, স্থানীয় সরকার বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব, পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিনিধি এবং নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তারা অংশ নিয়েছেন।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন