সমাবেশে বক্তারা বলেন, বস্তিবাসী সবচেয়ে কষ্টের মধ্যে থাকে। তাদের তেমন কোনো আয় থাকে না। ঈদের আগে সরকারের দেওয়া ‘ফ্যামিলি কার্ড’ বস্তিবাসীর মধ্যে বিতরণ করতে হবে।

সংগঠনটির সভাপতি এম এ সামাদ বলেন, ‘প্রতিবছর মালিকেরা শ্রমিকদের ঈদ বোনাস ও বেতন নিয়ে টালবাহানা করেন। ফলে শ্রমিকেরা পরিবার-পরিজন নিয়ে ঈদের মধ্যে নিদারুণ কষ্টে পড়েন। করোনা মহামারির পর শ্রমিক-কর্মচারীরা দিশেহারা। বর্তমান বাজারে দুবেলা দুমুঠো ভাত জোগাড় করাও অসম্ভব হয়ে পড়েছে।’

বর্তমান বাজারের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে শ্রমিকদের সর্বনিম্ন মজুরি ২৫ হাজার টাকা নির্ধারণেরও দাবি জানান বক্তারা।

সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সাহিদুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তালেবুল ইসলাম প্রমুখ।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন