বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এই দাবিতে আজ সকাল ১০টার দিকে উত্তরার রবীন্দ্র সরণিতে জড়ো হয়ে তাঁরা বিক্ষোভ শুরু করেন। পরে হকাররা উত্তরার রাজলক্ষ্মী বাসস্ট্যান্ডসংলগ্ন এলাকায় ঢাকা-১৮ আসনের সাংসদ হাবিব হাসানের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেন। এ সময় উচ্ছেদ বন্ধ ও স্থায়ী পুনর্বাসনের দাবিতে বিক্ষোভ ও স্লোগান দিতে দেখা যায় তাঁদের। এরপর দুপুর সোয়া ১২টার দিকে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে অবস্থান নেন তাঁরা। হকাররা অবস্থান নেওয়ায় সড়কের দুই দিকের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

একাধিক হকার ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী বলেন, করোনার সময় তাঁরা ব্যবসা করতে না পেরে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। বিভিন্ন সমবায় সমিতি ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে ঋণ নিয়ে ব্যবসা করেন তাঁরা। এখন যদি তাঁদের পুনর্বাসন না করে উচ্ছেদ করা হয়, তাহলে তাঁরা পথে বসবেন। এ ছাড়া দেনাও পরিশোধ করতে পারবেন না।

রাজলক্ষ্মী এলাকার দায়িত্বে থাকা ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক (টিআই) আকতারুজ্জামান প্রথম আলোকে বলেন, হকাররা প্রায় আধা ঘণ্টা ধরে সড়কের দুই পাশে বসে বিক্ষোভ করছেন। এ কারণে সড়কের উভয় দিকে আপাতত যান চলাচল বন্ধ। হকারদের সঙ্গে কথা বলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার চেষ্টা করছেন তাঁরা।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন