বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পল্লবী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবু সাঈদ আল মামুন প্রথম আলোকে বলেন, তিন ছাত্রীর নিখোঁজের ঘটনায় গ্রেপ্তার চারজনের মধ্যে একজনকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি মিলেছে। অন্যদের বয়স ১৮ বছর হয়েছে কিনা সেটি নির্ধারণের পর রিমান্ড শুনানি হবে। এদিকে এ ঘটনায় ছায়া তদন্ত করছে এমন একটি সংস্থা সূত্র বলছে, তিনজনই স্বেচ্ছায় ঘর থেকে বের হয়েছেন। তাদের খুঁজে বের করতে অভিযান চলছে।

গত বৃহস্পতিবার বাসা থেকে বের হয়ে ওই ছাত্রীরা নিখোঁজ হয় বলে পরিবারের অভিযোগ। তারা নগদ টাকা, স্বর্ণালঙ্কার ও মোবাইল নিয়ে গেছে। এ ঘটনায় গত শনিবার চারজনের বিরুদ্ধে পল্লবী থানায় মামলার করেন এক ছাত্রীর বড় বোন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, আসামিরা নিখোঁজ ছাত্রীদের পূর্ব পরিচিত। তাদের সবার বয়স ১৮ বছর। আসামিদের মধ্যে দুজন এক ছাত্রীর বাসায় নিয়মিত যেতেন। তারা একসঙ্গে বাইরে ঘুরতে বের হতেন। পল্লবীর প্যারিস রোড থেকে মাইক্রোবাসে করে তাদের অপহরণ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে মামলার বাদী প্রথম আলোকে বলেন, ‘প্যারিস রোড থেকে মাইক্রোবাসে করে অপহরণ করা হয়েছে বলে আমরা লোকমুখে শুনেছি। এর পরিপ্রেক্ষিতেই আমরা বিষয়টি মামলার এজাহারে উল্লেখ করেছি।’

পুলিশের মিরপুর বিভাগের পল্লবী জোনের অতিরিক্ত উপকমিশনার আরিফুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, পল্লবীর বিভিন্ন এলাকার ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার ফুটেজ পরীক্ষা করে এই তথ্যের সত্যতা পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় গ্রেপ্তার চার আসামির সংশ্লিষ্টতার বিষয়ে এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। নিখোঁজ ছাত্রীদের উদ্ধারে চেষ্টা চলছে।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন