ক্যাসিয়া গাছটি উপড়ে পড়ার বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের গাছপালার রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বে থাকা আরবরি কালচার সেন্টারের পরিচালক মিহির লাল সাহা বলেন, গাছটির বয়স ৩০-৪০ বছর হয়েছিল। এক ধরনের ছত্রাকের আক্রমণে গাছটির মূল নষ্ট হয়ে যাওয়ায় গাছটি উপড়ে পড়েছে।

উদ্ভিদবিজ্ঞানের এই অধ্যাপক প্রথম আলোকে বলেন, আপাতদৃষ্টিতে গাছটি দেখতে সুস্থই ছিল। বৃষ্টি হলে ঢাকায় জলাবদ্ধতা হয়। এর ফলে গাছটির পঁচা শেকড় আরও নরম ও দুর্বল হয়ে যায়।

আরবরি কালচার সেন্টার বিশ্ববিদ্যালয়ের ঝুঁকিপূর্ণ গাছগুলো চিহ্নিত করে বাঁচিয়ে রাখার চেষ্টা করবে বলে জানান মিহির লাল সাহা। তাঁর ভাষ্যমতে, কার্জন হল এলাকায় অন্তত আরও দুটি গাছ চোখে পড়েছে, যেগুলো ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। এগুলো কেটে ফেলা হবে। তবে যেখানেই গাছ কাটা হবে, সেখানে নতুন গাছের চারা রোপণ করা হবে।

এদিকে ক্যাসিয়া গাছটি উপড়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীর মোটরসাইকেলের ওপর পড়ে। তবে ওই সময়ে সেখানে কেউ ছিলেন না। ফলে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। খবর পেয়ে জরুরিভিত্তিতে গাছটি কেটে মোটরসাইকেলটি বের করা হয়।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন