বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

দুদকের সহকারী পরিচালক (জনসংযোগ) মোহাম্মদ শফিউল্লাহ প্রথম আলোকে এ তথ্য জানান।

দুদক সূত্র জানায়, জ্ঞাত আয়বহির্ভূত স্বনামে/বেনামে সম্পদ অর্জনের অভিযোগের প্রাথমিক অনুসন্ধানের ভিত্তিতে দুর্নীতি দমন কমিশন মজিবুর রহমান ও তাঁর স্ত্রীর এবং তাঁদের ওপর নির্ভরশীল ব্যক্তিদের স্বনামে/বেনামে অর্জিত যাবতীয় স্থাবর/অস্থাবর সম্পত্তি, দায়দেনা, আয়ের উৎস ও তা অর্জনের বিস্তারিত বিবরণী দাখিল করতে হবে।

নোটিশ পাওয়ার ২১ কার্যদিবসের মধ্যে নির্ধারিত ছকে এই বিবরণী দাখিল করতে হবে।
নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সম্পদ বিবরণী দাখিল করতে ব্যর্থ হলে অথবা মিথ্যা বিবরণী দাখিল করলে আইন অনুযায়ী তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে দুর্নীতি দমন কমিশন।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন