বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আজ রোববার রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‍্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন এসব তথ্য জানান। তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের ভুলতা গাউছিয়া থেকে গুলিস্তানে যাওয়ার পথে শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। উড়ালসেতুর ওপর থেকে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে আইলেন ঘেষে চলছিল মেঘলা পরিবহন বাসটি। এ সময় বাসটি যাত্রীদের চাপা দেয়। এতে মারা যান শেখ ফরিদ ও বাদশা মিয়া। এরপর শনিবার রাতে রাজধানীর ওয়ারী এলাকা থেকে চালককে গ্রেপ্তার করা হয়।

খন্দকার আল মঈন বলেন, চালকের হালকা পরিবহন চালানোর লাইসেন্স ছিল। এই লাইসেন্স দিয়েই তিনি ভারী যানবাহন চালাচ্ছিলেন। চালক শরীফ সাত–আট বছর ধরে মেঘলা পরিবহনের চালকের সহকারী হিসেবে কাজ করেছেন। পাশাপাশি বাস চালানোর প্রশিক্ষণ নেন। বাস চালাতে দেওয়ার জন্য মালিকদের অনুরোধ করেছিলেন রাকিব। কিন্তু লাইসেন্স না থাকায় কোনো মালিক তাঁকে বাস চালানের অনুমতি দিচ্ছিলেন না। পরে ২০১৯ সালে তিনি হালকা গাড়ি চালানোর লাইসেন্স করেন।

র‍্যাবের ওই কর্মকর্তা বলেন, গ্রেপ্তার চালক র‍্যাবকে জানিয়েছেন, ১৫ দিন ধরে তিনি ওই বাসটি চালাচ্ছিলেন। কয়েক দিন ধরে গাড়ির ব্রেক ঠিকভাবে কাজ করছিল না। বিষয়টি জানানোর পরও মালিক কোনো উদ্যোগ নেননি।

এক প্রশ্নের জবাবে আল মঈন বলেন, ‘ভুক্তভোগী পরিবার অজ্ঞাত চালকে আসামি করে মামলা করেছে। আমরা মালিককে জিজ্ঞাসাবাদ করেছি। তদন্তে মালিকের কোনো গাফিলতি পেলে ব্যবস্থা নেবে পুলিশ।’

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন