বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

রাষ্ট্রপক্ষ জানায়, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের পৃথক মামলায় আবুল কালাম, মো. আবুল কালাম ও জিয়াবুল হক হাইকোর্টে জামিন চান। হাইকোর্ট জামিন প্রশ্নে রুল দেন। পরে আসামিপক্ষের আইনজীবী আদালতে জামিন আবেদন তুলে নেওয়ার কথা জানান। কেননা জেলা আদালত থেকে আসামিরা জামিন পেয়েছেন। তখন হাইকোর্ট নথি তলব করেন। নথি আসার পর শুনানি নিয়ে ওই আদেশ দেওয়া হয়।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মো. মিজানুর রহমান। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, হাইকোর্ট তিন আসামির জামিন প্রশ্নে রুল দেন। তবে তাঁরা জজ আদালত থেকে জামিন পেয়েছেন বলে তাঁদের আইনজীবী জানালে হাইকোর্ট নিম্ন আদালত থেকে মামলাগুলোর নথি তলব করেন। নথি আসার পর হাইকোর্ট দেখতে পান, কক্সবাজারের যুগ্ম জেলা জজ প্রথম আদালতে মামলা তিনটি বিচারাধীন থাকা অবস্থায় কক্সবাজারের জেলা ও দায়রা জজ নথি তলব করে আসামিদের জামিন মঞ্জুর করেন। হাইকোর্ট এ বিষয়ে কক্সবাজারের জেলা ও দায়রা জজ মো. ইসমাইলকে দুই সপ্তাহের মধ্যে ব্যাখ্যা দিতে বলেছেন।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন