বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

র‍্যাব জানায়, জসিম ও তাঁর স্ত্রী লাকী গ্রেপ্তার এড়াতে টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরের একটি দরগা শরিফে লুকিয়ে ছিলেন। সেখান থেকেই তাঁদের গ্রেপ্তার করে র‍্যাব।

জসিম ও লাকী দম্পতিকে গ্রেপ্তারের পর তাঁদের সঙ্গে নিয়ে ঢাকার বসুন্ধরার বাসভবনের পাশাপাশি বনানীতে অবস্থিত জনশক্তি রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠানে ল্যাব অভিযান চালায়।

প্রতারণার মাধ্যমে গ্রাহকদের শতকোটি টাকা লোপাটের অভিযোগে গত ২৬ অক্টোবর কর্ণফুলী মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিমিটেডের ১০ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব-৪।

প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে অভিযোগ সম্পর্কে র‍্যাব-৪-এর অধিনায়ক মোজাম্মেল হক বলেন, সমবায় সমিতির নামে প্রতিষ্ঠানটির মালিক জসিম উদ্দিন ২৫ থেকে ৩০ হাজার মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করেছেন। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, প্রতিষ্ঠানটি গ্রাহকদের ১১০ কোটি টাকা লোপাট করেছে। বর্তমানে তাদের অ্যাকাউন্টে ৮০ লাখ টাকার মতো আছে।

ভুক্তভোগী ব্যক্তিদের মধ্যে পোশাককর্মী, রিকশাচালক, ভ্যানচালক, অটোচালক, সবজি-ফল ব্যবসায়ী, গৃহকর্মীসহ সমাজের নিম্ন আয়ের মানুষ রয়েছেন বলে জানায় র‍্যাব। র‍্যাবের ভাষ্য, কাগজে-কলমে প্রতিষ্ঠানটির সদস্যসংখ্যা পাঁচ শতাধিক।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন