৭ মে প্রথম আলোর প্রথম পৃষ্ঠায় ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে একের পর এক গাছ কেন উপড়ে পড়ছে’ শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। ওই প্রতিবেদনের সঙ্গে সূর্যসেন হলের সামনের হেলে পড়া গাছটির ছবি ছাপা হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, কৃষ্ণচূড়াগাছটি হেলে পড়েছে। গাছটির শরীরে রয়েছে জীবাণুর সংক্রমণ৷

default-image

আজ বুধবার দুপুরে সরেজমিনে দেখা গেল, কয়েকজন শ্রমিক সূর্যসেন হলের সামনের গাছটি কাটছেন। তাঁরা জানালেন, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে গাছটি কাটা হচ্ছে।
গত সোমবার সূর্যসেন হলের প্রাধ্যক্ষের কাছ থেকে গাছটির বিষয়ে একটি জরুরি চিঠি পেয়েছেন বলে জানান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের গাছপালার রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বে থাকা আরবরি কালচার সেন্টারের পরিচালক মিহির লাল সাহা। আজ দুপুরে তিনি প্রথম আলোকে বলেন, সূর্যসেন হলের ফটকের সামনের কৃষ্ণচূড়াগাছটি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় এটি কেটে ফেলা হচ্ছে। ওই স্থানে নতুন গাছের চারা রোপণ করা হবে।

ক্যাম্পাসে আরও কয়েকটি ঝুঁকিপূর্ণ গাছ শনাক্ত করা হয়েছে বলে জানান উদ্ভিদবিজ্ঞানের অধ্যাপক মিহির লাল সাহা। ক্যাম্পাসের যেখানেই গাছ কাটা হবে, সেখানেই নতুন গাছের চারা রোপণ করা হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন