বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন হাবিবের বাবা মোতালেব হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে বাসায় গ্যাস সিলিন্ডার কিনে আনেন রাজু। রাত আটটার দিকে রাজুর বোন শারমিন গ্যাস সিলিন্ডারের পাশে থাকা চুলা জ্বালাতে গেলে আগুন লেগে ছড়িয়ে যায়। এতে শারমিন, রাজু ও তাঁর দুই সন্তান এবং চাচাতো ভাই দগ্ধ হন।

মোতালেব হোসেন বলেন, গ্যাস সিলিন্ডারের ছিদ্র থেকে গ্যাস বেরিয়ে রান্নাঘরে জমে ছিল। দেশলাই দিয়ে আগুন ধরানোর সঙ্গে সঙ্গে আগুন ঘরে ছড়িয়ে পড়ে।

বার্ন ইনস্টিটিউটের আবাসিক চিকিৎসক পার্থ শংকর পাল প্রথম আলোকে বলেন, দগ্ধ পাঁচজনেরই শ্বাসনালি পুড়ে গেছে, তাঁদের অবস্থা সংকটজনক। রাজুর শরীরের ৩০, জান্নাতের ২৬, রোজার ৪৬, শারমিন আক্তারের ১০ ও হাবিবুরের ৩০ শতাংশ পুড়ে গেছে।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন