বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

সকাল সাড়ে ৯টায় কড়াইল এরশাদ স্কুল মাঠ কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায় বস্তিবাসীদের দীর্ঘ সারি। এতে নারীদের উপস্থিতি পুরুষদের চেয়ে প্রায় তিন গুণ।

টিকা নিতে এ কেন্দ্রে সকাল সাড়ে ৯টায় আসেন গৃহকর্মী সুমি আক্তার। দুই ঘণ্টা পর সাড়ে ১১টায় টিকা পান তিনি। প্রথম আলোকে তিনি বলেন, ‘গতকাল বাসায় (কড়াইলের বউবাজার) এসে নেতারা কার্ড দিয়ে গেছেন। আজকে তাই সকালেই টিকা নিতে চলে আসি। কোনো ঝামেলা ছাড়াই টিকা নিতে পারছি।’

কড়াইল বস্তির টিকাকেন্দ্রে স্বেচ্ছাসেবা দিচ্ছেন রেড ক্রিসেন্টের কর্মীরা। তাঁরা জানান, এখানে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা দেওয়া হচ্ছে।

এরশাদ স্কুল মাঠ কেন্দ্র পরিদর্শনে আসেন ঢাকা উত্তর সিটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম রেজা। তিনি সাংবাদিকদের জানান, ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে সব বস্তিবাসীকে টিকা দেওয়া হবে। আজকে ১৫ হাজার টিকা এসেছে। কাল থেকে ২০ হাজার করে টিকা মজুত থাকবে। তিনি জানান, সপ্তাহব্যাপী টিকা কর্মসূচি চলবে। লক্ষাধিক বস্তিবাসীদের টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে।

default-image

এ কেন্দ্রে টিকা নিতে আসেন আকলিমা খাতুন। তিনি বলেন, ‘সকাল ১০টায় এসেছি। এসেই দেখি লম্বা লাইন, লাইনে দাঁড়িয়ে আছি।’ দুপুর ১২টায়ও তিনি টিকা দেওয়ার সুযোগ পাননি।

এরশাদ স্কুল কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা রেড ক্রিসেন্টের কোভিড-১৯ টিকাদান কর্মসূচির কারিগরি পরামর্শক মাহমুদুল হাসান প্রথম আলোকে জানান, টিকা কর্মসূচি সকাল ৯টায় শুরু হয়েছে, চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। এরপরও যদি লাইনে দাঁড়ানো মানুষ থাকে, তাহলে তাঁদের বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত টিকা দেওয়া হবে। এরশাদ স্কুল কেন্দ্রের ৬টি বুথে ১২ জন টিকাকর্মী কাজ করছেন। দুপুর ১২টা পর্যন্ত কেন্দ্রটিতে ৩৭৭ জন নারী ও পুরুষকে টিকা দেওয়া হয়েছে বলেও তিনি জানান।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন