বিজ্ঞাপন

ওই নারীর স্বামী মিজানুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, গতকাল শনিবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে ছেলেকে নিয়ে তাঁর স্ত্রী বাসার কাছে ওষুধ কিনতে যান। ছেলে ওষুধ কিনলেও তাঁর মাকে খুঁজে পাচ্ছিল না। বিষয়টি জানার পর বাসার ছাদে স্ত্রীর খোঁজ করেন তিনি। খোঁজ করা হয় আত্মীয়স্বজনের কাছেও। কোথাও না পেয়ে তিনি খিলগাঁও থানায় গিয়ে স্ত্রীর নিখোঁজের বিষয়টি জানান। পরে আজ ভোরে বাসার নিচ থেকে শ্যামচাঁদ বেগমের মরদেহ পাওয়া যায়।

মিজানুর রহমান আরও জানান, অনেক আগে থেকেই তাঁর স্ত্রী মানসিক রোগে আক্রান্ত ছিলেন। তিনি চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। নিয়মিত ঘুমের ওষুধ খেতেন। শ্যামচাঁদ বেগম ছাদ থেকে পড়ে মারা গেছেন বলে ধারণা করছেন তিনি।

খিলগাঁও থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সানিয়া পারভীন প্রথম আলোকে বলেন, শ্যামচাঁদ বেগম নামের ওই নারীর কীভাবে মৃত্যু হয়েছে, তা এখনো জানা যায়নি। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজের (ঢামেক) মর্গে রাখা হয়েছে।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন