default-image

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র উদ্ভাবিত র‍্যাপিড অ্যান্টিবডি টেস্ট কিট অনুমোদন পায়নি ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের।

বৃহস্পতিবার রাতে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র এ কথা জানায়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, 'সরকারের ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর দেশের এই জরুরি অবস্থায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের কারিগরি কমিটির সুপারিশ গ্রহণ করেনি এবং জিআর কোভিড-১৯ র‍্যাপিড অ্যান্টিবডি টেস্ট কিটের নিবন্ধন দেয়নি।'

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র বলেছে, এ বিষয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ শিগগিরই তারা জানাবে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) গবেষক দল গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের কিটের কার্যকারিতা মূল্যায়ন করে। চলতি মাসের মাঝামাঝি বিএসএমএমইউ আনুষ্ঠানিকভাবে এই মূল্যায়ন প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

বিএসএমএমইউর গবেষক দল বলেছে, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের কিট কোভিড–১৯ আক্রান্ত ব্যক্তির অ্যান্টিবডি শনাক্তে ৭০ শতাংশ কার্যকর বলে প্রমাণিত হয়েছে। এই কিট কোভিড প্লাজমা বিতরণ, কোয়ারেন্টিনের (সঙ্গনিরোধ) সমাপ্তির সময় নির্ধারণ এবং লকডাউন তুলে নেওয়ার ব্যাপারে ব্যবহার করা যাবে। তবে কোভিড–১৯ রোগের উপসর্গ নিয়ে আসা ব্যক্তিদের রোগ শনাক্তকরণে এই কিট কার্যকর নয়। অর্থাৎ এই কিট দিয়ে অ্যান্টিজেন শনাক্ত করা যাবে না।

কোনো ব্যক্তি কোনো রোগে আক্রান্ত কি না, তা জানা যায় অ্যান্টিজেন পরীক্ষার মাধ্যমে। 

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0