বিজ্ঞাপন

এদিকে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে দেখা করেছেন গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজের অধ্যক্ষ ইসমাত রুমিনা। তবে শিক্ষার্থীদের বোঝাতে ব্যর্থ হয়ে তিনি ফিরে গেছেন। এখন অধ্যক্ষসহ অন্য শিক্ষকেরা কলেজে অবস্থান করছেন।

শিক্ষার্থীদের দাবির বিষয়ে অধ্যক্ষ ইসমাত রুমিনা বলেন, ‘শিক্ষার্থীরা আমাদের সঙ্গে কথা না বলেই আন্দোলন শুরু করে। তারা চাইছে শিক্ষামন্ত্রীর পক্ষ থেকে দিকনির্দেশনা আসুক। আমরা অভিযোগগুলো লিখিত আকারে দিতে বলেছি।’

গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ লালবাগ থানার অধীন। থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা উপপরিদর্শক ফিরোজের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি লাঠিপেটার বিষয়টি অস্বীকার করেন। তিনি বলেন, ‘এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটেনি।’

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন