default-image

রাজধানীর কাফরুল এলাকায় চাকরি দেওয়ার নামে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে আজ বৃহস্পতিবার আট প্রতারককে আটক করেছে র‍্যাব। এ ছাড়া চাকরিপ্রার্থী ১৩ ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব-৪)।

প্রতারকদের কাছ থেকে ১০০টি চাকরির নিয়োগ ফরম, ২টি রেজিস্টার বই, ১টি ল্যাপটপ, ২টি ফরম বই, ২টি সিল, ৩০০ ভিজিটিং কার্ড, ১৪টি মুঠোফোন ও ১৩ হাজার ৮০০ টাকা জব্দ করা হয়।

আটক ব্যক্তিরা হলেন কামরুজ্জামান (৪৫), রিয়াজ হোসেন (৩৫), রবিন মিয়া (২১), জামসেদ খান (১৯), শাহরিয়ার শেখ (২১), রিয়াদুল ইসলাম (১৮), কামরুজ্জামান (১৭) ও মাহমুদুল আলম (২০)।

র‍্যাব-৪–এর গণমাধ্যম শাখার সহকারী পরিচালক (সহকারী পুলিশ সুপার—এএসপি) জিয়াউর রহমান চৌধুরী বলেন, গোপন খবরের ভিত্তিতে আজ বেলা সাড়ে তিনটার দিকে র‌্যাব-৪–এর একটি দল কাফরুল থানার ‘এসবিএম ইন্টারন্যাশনাল টেকনোলজি’ নামের একটি কোম্পানিতে অভিযান চালায়। এ সময় চাকরি দেওয়ার নামে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে আট প্রতারককে আটক করা হয়। সেখানে চাকরিপ্রার্থী ১৩ ভুক্তভোগীকে পাওয়া যায়।

জিয়াউর রহমান চৌধুরী বলেন, আসামিরা রাজধানীসহ ঢাকা জেলার বিভিন্ন এলাকায় অফিস ভাড়া করে ভিন্ন ভিন্ন নামে–বেনামে ভুঁইফোড় প্রতিষ্ঠান খুলেছে। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে কিছুটা পড়াশোনা জানা শিক্ষিত বেকার ও আর্থিকভাবে অসচ্ছল তরুণ-তরুণীদের আকর্ষণীয় ও উচ্চ বেতনের চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ভুয়া নিয়োগপত্র দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে প্রতারক চক্রটি বিপুল পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছিল।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন