বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আলী ইমতিয়াজ নামে চন্দনের এক বন্ধু প্রথম আলোকে বলেন, ‘গত ছয় মাস থেকে চন্দনের সঙ্গে কারও যোগাযোগ ছিল না। এমনকি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও সে অ্যাক্টিভ ছিল না। সোমবার দুপুরে তাঁর বোন আমাদের ফোনে জানায়, সে আত্মহত্যা করেছে। সন্ধ্যার দিকে লালবাগ শ্মশানে তাঁর সৎকার সম্পন্ন করা হয়।’

বাড্ডা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ প্রথম আলোকে বলেন, ‘থানায় সকাল সাড়ে আটটার সময় ঘটনাটি জানানো হয়। আমরা ১৫ মিনিটের মধ্যে ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠাই। সেখান থেকেই পরিবারের সদস্যরা তাঁর লাশ নিয়ে যায়।’

এই পুলিশ কর্মকর্তা আরও বলেন, পরিবারের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত তিন বছর তিনি চাকরির চেষ্টা করছিলেন। তাঁদের পরিবার একমাত্র বোনের আয়ে চলছিল। এসব বিষয়ে তিনি প্রায় মানসিকভাবে পীড়িত হতেন। হতাশাগ্রস্ত হয়ে আত্মহত্যা করতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন